বিভিন্ন হাট-বাজারে হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি
Monday, 22nd August , 2016, 05:55 pm,BDST
Print Friendly, PDF & Email

বিভিন্ন হাট-বাজারে হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি



উজ্জ্বল রায়,
লাস্টনিউজবিডি, ২২ আগস্ট, নড়াইল : হাতি শুর পেঁপিয়ে চাঁদা দাবি করে। ফলে হাতির ভয়ে রাস্তায় যানবাহনের চালকরা, দোকান মালিকরা চাঁদা দিতে বাধ্য হয়। এ এক নতুন উপদ্রপ।

এর আগে নড়াইল শহর এলাকার বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধে ওই হাতিটিকে রাখা হয়েছিল। পার্শ্ববর্তী এলাকার কলার গাছগুলো হাতিকে খাইয়ে সাবার করে ফেলা হয়েছে।

কলেজ মোড় বাজার সহ বিভিন্ন হাট-বাজারে শনিবার দোকানিরা হাতিকে ১০ থেকে ২০ টাকা চাঁদা দিতে বাধ্য হয়েছে।

শুধু চাঁদাই নয়, পথচারীরা তার গর্জনে ভয়ে আতংকিত হয়ে পড়তে দেখা গেছে। তবে বগুড়া জেলার মহাস্থান এলাকার জনৈক মেহেদী ‘সুন্দরমালা’ নামের হাতির পরিচালক হাতির খাবার সংগ্রহ অজুহাতে হাতিকে দিয়ে এই চাঁদাবাজি শুরু করেছে।

এছাড়া সে গ্রামে-গঞ্জের কলারগাছগুলো হাতির খাদ্য হিসেবে নিচ্ছে। হাতির পরিচালোনাকারি জানান, এভাবেই আমরা হাতি ও আমাদের খাওয়া খরচ চালাই।

যে হাট-বাজার এলাকায় হাতি যায় সেখানেই মানুষের সমাগম ঘটে এবং বিনা পয়সায় তাদের বিনোদন ও হাতি দেখার সুযোগ করে দিতেই তিনি এ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন।

kotir silpo
নড়াইলে বাঁশজাত কুটির শিল্প এখন প্রায় বিলুপ্ত
নড়াইলে বাঁশজাত কুটির শিল্প এখন বিলুপ্ত প্রায়। ফলে এ শিল্পকর্মে নিয়োজিত প্রায় সাড়ে ৫ হাজার পেশাদার কারিগর এখন চরম দুর্ভোগের শিকার।

জীবন জীবিকার প্রয়োজনে তারা তাদের পৈত্রিক পেশাও ছাড়তে পারছে না, আবার এ পেশা আঁকড়ে ধরে খেয়ে পরে বেঁচে থাকাও দুস্কর হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বাঁশজাত শিল্পকর্মের মধ্যে ডালি, কুলা, চালুন, ঝাঁপি, দোলনাসহ নানা নকশি শো-পিস ক্রেতাদের কাছে জনপ্রিয়। তারপরও বাঁশের তৈরী চাটাই, নকশি করা ঘরের ছাদ, ঝাটা শলাসহ গৃহস্থালী কাজে ব্যবহার্য জিনিসের এখনও যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে।

কিন্তু পরিবেশগত ভারসাম্যহীনতায় এবং অবাধ বৃক্ষনিধনের মাধ্যমে বনাঞ্চল উজাড় হয়ে যাওয়ায় জেলায় ব্যাপক হারে বাঁশঝাড়ও বিলুপ্ত হয়ে গেছে।এছাড়া তিস্তা ও ব্রহ্মপুত্র নদী তীরবর্তী এলাকায় ইতোপূর্বে প্রচুর বাঁশ বন থাকলেও অব্যাহত নদী ভাঙনে বাঁশঝাড়ের সবচাইতে বেশি ক্ষতি হয়েছে।

ফলে বাঁশ প্রধান এ অঞ্চলে এখন বাঁশের সংকট। সে জন্য বাঁশজাত শিল্পকর্মের জন্য প্রয়োজনীয় বাঁশের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধির কারণে উৎপাদন ব্যয় বহুলাংশে বাড়লেও আনুপাতিক হারে বিক্রয় মুল্য বাড়েনি।

কারণ বাঁশজাত কুটিরশিল্পে নিয়োজিত হত দরিদ্র ভাঙন কবলিত ছিন্নমুল মানুষ জীবন জীবিকার তাগিদে নারী পুরুষ উভয়েই শ্রমে নিয়োজিত হতে বাধ্য হচ্ছেন।

সেজন্য জেলার বাঁশজাত কুটির শিল্পে নিয়োজিত দরিদ্র পাটনী পরিবারগুলোকে সহজ শর্তে জামানত বিহীন ঋণ সহায়তা প্রদান করা হলে এই কুটির শিল্প যেমন বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষা পেত।

তেমনি বাঁশজাত শিল্পর কারিগররা পৈত্রিক পেশাকে উপজীব্য করে জীবন জীবিকা চালিয়ে নিতে সক্ষম হতো।

লাস্টনিউজবিডি, এ এস

Print Friendly, PDF & Email

You must be logged in to post a comment Login

পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

আপনি কি মনে করেন বাসে আগুন দিয়ে কি সরকার পরিবর্তন করা যাবে ?

View Results

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
যুবলীগের নতুন নেতৃত্বঃ পরশের পরশ ছোঁয়ায় জেগে উঠুক কোটি তরুণ
।।মানিক লাল ঘোষ।।"আমার চেষ্টা থাকবে যুব সমাজ যেনো...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • বিরল প্রজাতির শুকুন পাখি উদ্ধার
  • চিকিৎসা সামগ্রী চুরি, হাতেনাতে ধরা খেলেন হাসপাতালের কর্মচারী
  • রুহিয়া এলএসডিকে জমি দান করলেন এমপি রমেশ চন্দ্র

আপনি কি মনে করেন বাসে আগুন দিয়ে কি সরকার পরিবর্তন করা যাবে ?

  • না (67%, ১৪ Votes)
  • হ্যা (24%, ৫ Votes)
  • মতামত নাই (9%, ২ Votes)

Total Voters: ২১

Start Date: নভেম্বর ১৩, ২০২০ @ ২:৫৪ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

How Is My Site?

  • Good (0%, ০ Votes)
  • Excellent (0%, ০ Votes)
  • Bad (0%, ০ Votes)
  • Can Be Improved (0%, ০ Votes)
  • No Comments (100%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: নভেম্বর ১৩, ২০২০ @ ২:৫৪ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry