সাংবাদিকতাকে সনদের আওতায় আনা প্রয়োজন
Sunday, 21st August , 2016, 08:19 pm,BDST
Print Friendly, PDF & Email

সাংবাদিকতাকে সনদের আওতায় আনা প্রয়োজন



মো.নাজিম উদ্দিন ভূইয়া,
লাস্টনিউজবিডি, ২১ আগস্ট, কুমিল্লা :  অভিজ্ঞতা থেকে বলছি সাংবাদিকতার সঙ্গে জড়িত থেকে আমি নিজে যখন কিছু সাংবাদিকের বিভিন্ন কর্মকান্ড দেখে সমালোচনামূখর হই, তখন আমার শুভাকাঙ্খিরা আমার দিকে তেড়ে আসেন।

আমাদের এই দেশে সবকিছু গোষ্ঠিবদ্ধভাবে বিবেচনার এক সংস্কৃতি আমরা চালু করেছি। যেখানে যাই ঘটুক না কেন আমরা সবগুলোকে নিজেদের দলসূত্রে বেঁধে ফেলি। সাংঘাতিক, চাঁদাবাজ, ব্লেকমেইলার, বলে লোকে নিন্দা করে থাকে। এর কারন হচ্ছে অপ-সাংবাদিকতা।

একজন ভালো সাংবাদিক হতে হলে কমন সেন্স, লেখালেখির যোগ্যতা, ভাষাগত দক্ষতা, চাপ সহ্য করার ক্ষমতা, সবার সঙ্গে ভাব জমানোর ক্ষমতা আর পড়াশোনা অন্তত গ্রাজুয়েট।

কিন্তু যারা নিজের নাম লিখতেই কষ্ট হয় তারা নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দেয় কিভাবে? কে দেয় তাদের স্বীকৃতি। কে দেয় তাদের এ সুযোগ।

এই সমস্যার বড় কারণ হরেদরে সাংবাদিক পরিচয় দেওয়ার সুযোগ। এই সুযোগ নিয়ন্ত্রন করতে হবে এবং এই নিয়ন্ত্রন আরোপে প্রকৃত সাংবাদিকদের সাহসী উদ্যোগ নেয়া প্রয়োজন।

অনেকে সাংবাদিকতার (লেবাস) পরিচয় দিয়ে নিজের হামলা, মামলা থেকে পরিত্রান, সরকারি বেসরকারি অফিসে গিয়ে ধমক দিয়ে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর খবর প্রচার করে চাকুরীচ্যুাতির ভয় দেখিয়ে নিজের স্বার্থ সিদ্ধির জন্য নিয়মিত হয়রানী করে কাজ আদায় করা, রাস্তায় ট্রাফিক আইন ভাঙ্গা, সর্বোপরি চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসি, জন সাধারণকে ব্লেইকমেইল করে আসা তাদের নিত্যদিনের কাজ হয়ে দাড়িয়েছে।

এসব ‘সাংবাদিক’দের দায় নিতে হচ্ছে প্রকৃত সাংবাদিকদেরকে। হাতে কাগজ-কলম ধরিয়ে দিয়ে সংবাদ লিখতে বলতে এতে নারাজ। অথচ এমন কোন অফিস-প্রতিষ্ঠান নেই যে, এদের দেখা যায় না ।

এদের পেশা ও নেশা হচ্ছে, ভয়-ভীতি দেখিয়ে টু-পাইসা ইনকাম করা। এর থেকে পরিত্রান পেতে হলে যোগ্যতা সম্পন্ন সাংবাদিক দরকার। দরকার একটি সুন্দর নীতিমালা যেখানে সাংবাদিকদের নুন্যতম একাডেমিক (গ্র্যাজুয়েট) এবং সাংবাদিকতা পেশার সনদধারী। তাহলে এসব সংবাদকর্মীরা আর সাধারণ মানুষকে হয়রানী করতে পারবেনা।

সাংবাদিকতার মতো মহান পেশার উপর কোন রকমের অপবাদ আসবেনা। যে কারো হাতে যেভাবে ছুরিকাঁচি তুলে দিয়ে অপারেশনের সার্জন বানিয়ে দেয়া গ্রহনযোগ্য হয় না, তেমনি যে কারো হাতে কলম-ক্যামেরা তুলে দিয়ে তাঁকে সংবাদ সংগ্রহ ও প্রচারের দায়িত্ব দেওয়াটাও গ্রহণযোগ্য হওয়া উচিত নয়।

এসব নূন্যতম জ্ঞানবিহীন অদক্ষরা সদ্য শিং গজানো বাছুরের মতো সাংবাদিকরা পকেটে বা বুকে আইডি কার্ড ঝুলিয়ে উন্মত্তের মতো আচরণ করে আসছে প্রতিনিয়ত এতে করে সাংবাদিকদের প্রতি আস্থা হারাচ্ছে সাধারণ মানুষ।

এখন কথা হচ্ছে এসব সামলাবে কে? আমার মতে এজন্য সাংবাদিকতার সনদ এবং বিধিমালা তৈরি করা প্রয়োজন বলে মনে করি। সততা, বস্তুনিষ্ঠতা, মেধা ও সাহসিকতা না থাকলে সাংবাদিকতা পেশায় আসা উচিৎ নয়।

সাংবাদিকতাকে সনদের আওতায় আনা অত্যন্ত প্রয়োজন। কোন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না নিয়ে সাংবাদিকতা করার সুযোগ থাকার কারনে দেশে অপ-সাংবাদিকতা দিন দিন বেড়েই চলছে। আর এতে করে কলংকিত হচ্ছে এ মহান পেশা।

এলএলবি পাশ না করে কেউ আইনজীবী হতে পারেন না। সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে পরীক্ষা দিয়ে তাদেরকে সনদ অর্জন করতে হয়। তদরূপ সাংবাদিকতার ক্ষেত্রেও একটি নীতিমালা প্রয়োজন।

এ নীতিমালা অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সনদ অর্জনের মাধ্যমে সাংবাদিকতায় আসলে অপ-সাংবাদিকতা রোধ হবে। সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে জবাবদিহিতা প্রতিষ্ঠিত হবে।
সনদ থাকার কারণে আমরা সাধারণ মানুষরা বুঝতে পারি যে এই চিকিৎসক কি আইনজীবি আসলেই আমাকে সেবা দেয়ার যোগ্যতা অর্জণ করেছেন কী না।

সেবা প্রদানে গুরুতর কোনো অনৈতিকতা থাকলে আমরা বিচারপ্রার্থী হতে পারি এবং দায়ী ব্যক্তির সনদ বাতিল করে তাঁকে পেশা থেকে সরিয়ে দেয়ার ব্যবস্থা আছে।

তাই এই ধরনের পেশাদারিত্বের নিবন্ধন ও সনদ একজন মানুষকে নিজ পেশায় দায়িত্বশীল হতে বাধ্য করে।

আমি আশা করি সাংবাদিকদের পেশাদারিত্বের সনদ দেয়ার এখতিয়ার দিয়ে একটি কর্তৃপক্ষ তৈরির ব্যাপারে মিডিয়া সংশ্লিষ্ঠ সকল মহল গুরুত্ব দিয়ে ভাববেন।

এরকম প্রতিষ্ঠানের রূপরেখা কীভাবে হবে, সনদ পাওয়ার জন্য কোনো প্রশিক্ষন, অভিজ্ঞতা এবং অন্যান্য শর্তাবলী কী হবে এ ব্যাপারে দেশের অভিজ্ঞ সংবাদকর্মীদের সহায়তায় একটি গ্রহনযোগ্য সমাধান পাওয়া সম্ভব।

এই কর্তৃপক্ষ সাংবাদিকদের জন্য আচরণবিধি তৈরি ও প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করবে এবং তাঁদেরকে সেগুলো মেনে চলতে উৎসাহিত এবং ক্ষেত্রবিশেষে বাধ্যও করবে।

অনেকেই হয়তো আমার এই প্রস্তাবকে সাংবাদিক নিয়ন্ত্রনের মনোভাব হিসেবে দেখতে চাইবেন। কিন্তু আমার মনে হয় বরং প্রকৃত সাংবাদিকদেরই উচিত হবে এ বিষয়ে অগ্রনী ভুমিকা নেয়া।

আমাদের নিজেদের পেশার সুনাম রক্ষার জন্যই সাংবাদিকতার বাগান থেকে আগাছা দূর করার ব্যবস্থা জরুরি হয়ে পড়েছে।

কিছু কথিত সাংবাদিক রয়েছে যারা সাংবাদিকতার নামে বিভিন্নভাবে অপকর্মের সাথে জরিত।

গত বৃহস্পতিবার (১৮ আগষ্ট) দুপুর ১টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চান্দিনা উপজেলাধীন তীরচর এলাকায় ইলিয়টগঞ্জ ফাঁড়ির হাইওয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে সংবাদপত্র বহনকারী ১টি মাইক্রোবাস থেকে ৭ কেজি গাঁজা উদ্ধারসহ সুমন ভূইয়া (৩৪) নামে এক কথিত সাংবাদিককে আটক করেছে।

আটক সুমন ভূইয়া কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলাধীন ধর্মপুর এলাকার বাসিন্দা। সে নিজেকে দৈনিক সন্ধ্যার বাণী পত্রিকার প্রতিনিধি হিসেবে পরিচয় দেয়। এটা কি সাংবাদিকদের জন্য অপমানজনক নয় ?

সমাজে যা কিছু ক্ষতিকর তার বিরুদ্ধেই আমাদের অবস্থান। দুর্নীতি-অনিয়ম, সন্ত্রাস, ইয়াবা কিংবা মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের সোচ্চার ভূমিকা পালন করতে হবে।

এ কাজ করতে গিয়ে হয়তো জীবনও উৎসর্গ করা হতে পারে। সেজন্যও প্রস্তুত থাকতে হবে। দেশ ও জনগণের জন্য সাংবাদিকতা করতে হবে।

লাস্টনিউজবিডি, এ এস

Print Friendly, PDF & Email

You must be logged in to post a comment Login

পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

আপনি কি মনে করেন বাসে আগুন দিয়ে কি সরকার পরিবর্তন করা যাবে ?

View Results

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
যুবলীগের নতুন নেতৃত্বঃ পরশের পরশ ছোঁয়ায় জেগে উঠুক কোটি তরুণ
।।মানিক লাল ঘোষ।।"আমার চেষ্টা থাকবে যুব সমাজ যেনো...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • রুহিয়া এলএসডিকে জমি দান করলেন এমপি রমেশ চন্দ্র
  • জাহাঙ্গীর হত্যা মামলার প্রধান আসামী গ্রেফতার
  • বোরকা কিনে দেওয়ার কথা বলে কলেজছাত্রীকে হোটেলে নিয়ে ধর্ষণ

আপনি কি মনে করেন বাসে আগুন দিয়ে কি সরকার পরিবর্তন করা যাবে ?

  • না (67%, ১৪ Votes)
  • হ্যা (24%, ৫ Votes)
  • মতামত নাই (9%, ২ Votes)

Total Voters: ২১

Start Date: নভেম্বর ১৩, ২০২০ @ ২:৫৪ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

How Is My Site?

  • Good (0%, ০ Votes)
  • Excellent (0%, ০ Votes)
  • Bad (0%, ০ Votes)
  • Can Be Improved (0%, ০ Votes)
  • No Comments (100%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: নভেম্বর ১৩, ২০২০ @ ২:৫৪ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry