মেয়াদপূর্তির আগেই যেভাবে বিদায় নিলেন ইবির সাবেক ভিসিরা!
Friday, 1st July , 2016, 11:06 am,BDST
Print Friendly, PDF & Email

মেয়াদপূর্তির আগেই যেভাবে বিদায় নিলেন ইবির সাবেক ভিসিরা!



লাস্টনিউজবিডি, ১ জুলাই, ইবি প্রতিনিধি: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা কাল থেকে কোন ভিসিই তার চার বছরের পূর্ণ মেয়াদে দায়িত্ব পালন করতে পারেননি। অধিকাংশ ভিসিই দুই থেকে আড়াই বছরের মাথায় পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছেন অথবা অপসারিত হয়েছেন।

এমনকি ৫ মাস দায়িত্ব পালন করার পর পদত্যাগ করার ইতিহাসও রয়েছে। নিয়োগ বাণিজ্য, দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতিতে জড়িয়ে আবার কখনো পেশীশক্তির অশ্লীল ছাত্ররাজনীতি অথবা নোংরা শিক্ষক রাজনীতির কবলে পড়ে একে একে বিদায় নিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির সাবেক ১১ ভিসি।

সর্বশেষ প্রফেসর ড. আবদুল হাকিম সরকারকে গত ৩০ জুন নির্ধারিত মেয়াদের ৫ মাস ২৭ দিন আগেই দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। তবে দায়িত্ব পালন কালে তার বিরুদ্ধেও বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উঠে। মেয়াদ পূর্তির আগে ভিসি পদ থেকে অব্যহতি পেয়ে প্রফেসর ড. আবদুল হাকিম সরকারও ইতিহাস হয়ে থাকল।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকল্প পরিচালক এবং পরবর্তীতে চার বছরের জন্য প্রথম ভিসি হিসেবে ১৯৮১ সালের ৩০ জানুয়ারী নিযুক্ত হন প্রফেসর ড. এ এন এম মমতাজউদ্দিন চৌধুরী। দ্বিতীয় মেয়াদে ভিসি থাকাকালীন ক্যাম্পাস গাজীপুর থেকে কুষ্টিয়ায় স্থানান্তর নিয়ে তৎকালীন সরকারের সঙ্গে মতবিরোধের জের ধরে মেয়াদপূর্ণ হওয়ার এক বছর বাকি থাকতেই ১৯৯০ সালের ২৭ শে ডিসেম্বর তিনি অপসারিত হন।

১৯৯০ সালের ২৮ ডিসেম্বরে দ্বিতীয় ভিসি হিসেবে চার বছর মেয়াদে নিযুক্ত হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম। যৌন কেলেঙ্কারি ও শিক্ষকদের মূল্যায়ন না করার অভিযোগে মাত্র আড়াই বছরের মাথায় ১৯৯১ সালের ১৭ জুন তাকে ক্যাম্পাস ত্যাগ করতে হয়। তিনি মাত্র ৫ মাস ২০ দিন ভিসি হিসাবে দাযিত্ব পালন করেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আব্দুল হামিদ ১৯৯১ সালের ২০ জুন তৃতীয় ভিসি হিসেবে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন। তিনি অবৈধ্য নিয়োগ দিতে অস্বীকার করায় স্থানীয় চাকরি প্রার্থীরা তাকে তার বাসায় তাকে ৩ দিন অবরোধ করে রাখে বলে জানা যায়। এমনকি তার বাসার টেলিফোন লাইন, বিদ্যুৎ, খাবার ও পানি সরবরাহ বন্ধ করে দেয় চাকরি প্রত্যাশীরা। প্রাণভয়ে তিনি রাতের আঁধারে পালিয়ে যান। তিনি ৩ বছর ১০ মাস ১ দিন দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৯৫ সালের ৯ মে প্রফেসর মুহাম্মদ ইনাম-উল হক চতুর্থ ভিসি হিসেবে যোগদান করেন। ভয়ংকর এক পরিস্থিতিতে লাঞ্ছিত হয়ে বিদায় নিতে হয় প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইনাম-উল- হককে। রাজনৈতিক পটপরিবর্তনের প্রেক্ষাপটে ১৯৯৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলনকারীরা তাকে মারধর করে গাড়িতে তুলে দেয়। এরপর তিনি আর ক্যাম্পাসে ফেরেননি। তিনি ২ বছর ৩ মাস ২৪ দিন দায়িত্ব পালন করেন।

এরপর ১৯৯৭ সালের ৩ সেপ্টেম্বর পঞ্চম ভিসি হিসেবে নিয়োগ পান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. মুহাম্মদ কায়েস উদ্দিন। তার বিরুদ্ধে ব্যাপক দুর্নীতি, অনিয়ম, দলীয়করণ, স্বজনপ্রীতি ও আঞ্চলিকীকরণের অভিযোগে তীব্র আন্দোলন শুরু হলে ২০০০ সালের ১৮ অক্টোবর মেয়াদপূর্ন হওয়ার ১ বছর আগেই পদত্যাগ করে চলে যান।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক প্রফেসর ড. মুহাম্মদ লুৎফর রহমান ২০০০ সালের ১৯ অক্টোবর ষষ্ঠ ভিসি হিসাবে যোগদান করেন। জোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর মাত্র এক বছরের মাথায় ২০০১ সালে ৯ ডিসেম্বর ক্যাম্পাস ছেড়ে চলে যান। তিনি ১ বছর ১ মাস ১ দিন দায়িত্ব পালন করেন।

এর পর ২০০১ সালে ১০ ডিসেম্বর সপ্তম ভিসি হিসেবে নিযুক্ত হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মুস্তাফিজুর রহমান। তার নকার্যকালে দুই বছরের মাথায় আওয়ামীপন্থী প্রগতিশীল ও বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের একাংশ এবং তাদের সমর্থিত ছাত্র সংগঠনের লাগাতার আন্দোলনের তোপে মেয়াদ পূর্তির দুই বছর আগেই ২০০৪ সালে ২ এপ্রিল তিনি অপসারিত হন। তিনি ২ বছর ৩ মাস ২৩ দিন দায়িত্ব পালন করেন। সপ্তম ভিসিকে অপসারণের পর ২০০৪ সালে ৩ এপ্রিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. এম রফিকুল ইসলামকে অষ্টম ভিসি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।

স্থানীয় চাকরী প্রার্থীদের চাপের মুখে ভিসি প্রফেসর ড. এম রফিকুল ইসলাম ২০০৬ সালের ২০ জুন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পদত্যাগ পত্র জমা দেন। চ্যান্সেলর ও প্রধানমন্ত্রী তা অনুমোদন করেন এবং ১০ জুলাই শিক্ষামন্ত্রনালয় থেকে ভিসি অফিসে ফ্যাক্সবার্তার মাধ্যামে জানানো হয় ভিসি পদে নতুন নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত ট্রেজারার প্রফেসর ড.এ এস এম আনোয়ারুল করীম তার দায়িত্বে অতিরিক্ত ভিসির আর্থিক ও প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন করবেন। এ সময় ক্লাসবর্জন করে শিক্ষকরা এ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একজন শিক্ষককে ভিসি হিসেবে নিয়োগের দাবিতে আন্দোলন করেন।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে প্রথমবারের মত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের প্রফেসর ফয়েজ মোহাম্মদ সিরাজুল হককে নবম ভিসি হিসেবে নিয়োগ দেন। নিয়োগ পেয়ে তিনি তার অত্যন্ত কাছের দুর্নীতিবাজ কিছু ঘনিষ্ঠ শিক্ষককে প্রশাসনিক বিভিন্ন দায়িত্ব দেন বলে অভিযোগ ওঠে। এতে তিনি চরম ভাবে বিতর্কিত হয়ে পড়েন। ভিসি প্রফেসর ফয়েজ মোহাম্মদ সিরাজুল হক ২০০৯ সালে ১৫ জানুয়ারী শিক্ষা সচিব মোমতাজুল ইসলামের কাছে তার পদত্যাগ পত্র জমা দেন।

সিরাজুল হকের পর ২০০৯ সালের ৯ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত ও রাসায়নিক প্রযুক্তি বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর ড. এম আলাউদ্দিন দশম ভিসি হিসেবে নিয়োগ পান। প্রফেসর ড. এম আলাউদ্দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব নেয়ার পর মোট তিনটি চাকরির সিন্ডিকেট সম্পন্ন করেন। সর্বশেষ ২০১২ সালের ৭ ও ৮ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ২১৭তম সিন্ডিকেটে ১২৬ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগকে কেন্দ্র করে নিয়োগে অনিয়ম, দূর্নীতি, স্বজনপ্রীতি ও নিয়োগ-বাণিজ্যের অভিযোগে শিক্ষকরা ভিসি, প্রো-ভিসি ও ট্রেজারাররে পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন।

শিক্ষকদের আন্দোলনের পরিপেক্ষিতে ২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর তৎকালীন রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান তাকে ওই দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেন। এর পর ২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের এগারো তম ভিসি হিসেবে দায়িত্ব পান ঢাকা বিশ্ববিদ্যায়ের সমাজকল্যাণ ইন্সটিটিউটের শিক্ষক প্রফেসর ড. আবদুল হাকিম সরকার। দায়িত্ব পালন কালে তার বিরুদ্ধেও বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উঠে।

এসব অভিযোগের ভিত্তিতে তার বিরুদ্ধে ইউজিসি থেকে দুই দফা তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সর্বশেষ গত ৯ ও ১০ এপ্রিল ইউজিসি থেকে একটি তদন্ত টিম ক্যাম্পাসে আসেন। তারা শিক্ষক নিয়োগে বিভিন্ন অনিয়মসহ সার্বিক বিষয় তদন্ত করেন। এর আগে ইউজিসির অপর আরেকটি তদন্ত টিম ক্যাম্পাসের সার্বিক বিষয়ে তদন্ত করেছে। অবশেষে ৩০ জুন বৃহস্পতিবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি পদ থেকে ড. আবদুল হাকিম সরকারকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে। নির্ধারিত মেয়াদের ৫ মাস ২৭ দিন আগেই তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

বিকেল আড়াইটার দিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক ফ্যাক্স বার্তায় এই তথ্য জানানো হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম আব্দুল লতিফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বার্তায় উল্লেখ করা হয়েছে, রাষ্ট্রপতি ও চ্যান্সেলর ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আইন-১৯৮০ এর ১০(১) ধারা অনুযায়ী নিয়োগ আদেশের (ক) শর্তানুসারে ভিসি প্রফেসর ড. আবদুল হাকিম সরকারকে অব্যাহতি প্রদান করেছেন। তবে এই ফ্যাক্স বার্তায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ভিসি হিসেবে কে দায়িত্ব পালন করবেন সে বিষয়ে কোনো নির্দেশনা দেয়া হয়নি। এছাড়া মেয়াদ পূর্তির আগেই কেন তাকে অব্যহতি দেয়া হয়েছে, সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি।

তবে ইউজিসির তদন্ত প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে তাকে দায়িত্ব তেকে অব্যহতি দেওয়া হতে পারে বলে চাউর রয়েছে। এদিকে বিগত দুই ভিসি প্রফেসর ড. এম আলাউদ্দিন ও প্রফেসর ড. আবদুল হাকিম সরকারকে সরানো পেছনে সাবেক প্রোভিসি ও বর্তমান প্রোভিসির ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে। বিগত ভিসি প্রফেসর ড. এম আলাউদ্দিনকে তৎকালিন প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. কামাল উদ্দিনের নানা অপকর্মের জন্য অব্যহিত দেওয়া হয়। একই ভাবেে প্রফেসর ড. আবদুল হাকিম সরকারও বর্তমান প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. শাহিনুর রহমানের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়।

প্রো-ভিসি হিসেবে ভিসিকে সহযোগীতার করার কথা থাকলেও তিনি সব সময়ই অসহযোগীতা করেছেন। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিগত ১০ ভিসির মত প্রফেসর ড. আবদুল হাকিম সরকার মেয়াদ পূর্তির আগেই অব্যহতি পেয়ে আগের ইতিহাসই ধরে রাখলো। তবে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যদের মনে প্রশ্ন উঠেছে ভবিষ্যতেও কোন ভিসি কি পারবে তার মেয়াদ পূর্ণ করতে?

এছাড়া প্রো-ভিসি ড. শাহিনুর রহমানের বিরুদ্ধে নিয়োগে অনিয়ম, দুর্নীতি, যৌন কেলেঙ্কারির দায়ে ছাত্রীর আত্মহত্যা, জামায়াত শিবির কানেকশন, পিএইচডি জালিয়াতিসহ বিভিন্ন অভিযোগ থাকায় তাকেও খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে অব্যহতি দেওয়া হতে পারে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে।

লাস্টনিউজবিডি/এমআই

 

Print Friendly, PDF & Email

মতামত দিন

মতামত দিন

পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

করোনার বুলেটিন না প্রকাশের সাথে আপনি কি একমত ?

ফলাফল দেখুন

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
বাংলাদেশ-মিয়ানমার : সামরিক শক্তিতে কে এগিয়ে?
বাংলাদেশ-মিয়ানমারের মধ্যে কখনো সরাসরি যুদ্ধ না বা...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে বৃদ্ধকে হত্যা!
  • মুখে গামছা বেঁধে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ!
  • হিলি স্থলবন্দরে ৬ দিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

করোনার বুলেটিন না প্রকাশের সাথে আপনি কি একমত ?

  • মতামত নাই (12%, ১১ Votes)
  • হ্যা (31%, ২৮ Votes)
  • না (57%, ৫১ Votes)

Total Voters: ৯০

করেনার বুলেটিন না প্রকাশের সাথে আপনি কি একমত ?

  • মতামত নাই (0%, ০ Votes)
  • হ্যা (0%, ০ Votes)
  • না (100%, ০ Votes)

Total Voters:

ঈদ উদযাপনের চেয়ে বেঁচে থাকার লড়াইটা এই মুহূর্তে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। আপনি কি একমত ?

  • মতামত নাই (12%, ১৪ Votes)
  • না (16%, ১৯ Votes)
  • হ্যা (72%, ৮৬ Votes)

Total Voters: ১১৯

ত্রাণ নিয়ে সমালোচনা না করে হতদরিদ্রদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর, এই আহবানের সাথে কি আপনি একমত ?

  • মতামত নাই (4%, ২ Votes)
  • না (16%, ৮ Votes)
  • হ্যা (80%, ৪১ Votes)

Total Voters: ৫১

যাদের প্রচুর টাকা-পয়সা, ধন-দৌলতের অভাব নেই তারা কীভাবে আন্দোলন করবে? বিএনপির ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদের। আপনি কি এই মন্তব্যের সাথে একমত ?

  • মতামত নাই (15%, ১০ Votes)
  • না (21%, ১৪ Votes)
  • হ্যা (64%, ৪৪ Votes)

Total Voters: ৬৮

বিএনপির কর্মীরা নেতাদের প্রতি আস্থা হারিয়েছেন,জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রবের বক্তব্যের সাথে আপনি কি একমত ?

  • মন্তব্য নেই (21%, ৩ Votes)
  • না (21%, ৩ Votes)
  • হ্যা (58%, ৮ Votes)

Total Voters: ১৪

অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে বিএসটিআই‌‌‍‍র এখন গতিশীল ফিরে এসেছে এই কথার সাথে কি আপনি একমত ?

  • হ্যা (14%, ১ Votes)
  • একমত না (29%, ২ Votes)
  • না (57%, ৪ Votes)

Total Voters:

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ হবে বলে আপনি কি মনে করেন ?

  • মতামত নেই (13%, ৬ Votes)
  • না (43%, ২০ Votes)
  • হ্যা (44%, ২১ Votes)

Total Voters: ৪৭

দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শক্ত অবস্থান নিয়েছেন। এজন্য তার অনেক আত্মীয়-স্বজনকে গণভবনে ঢোকা বন্ধ করে দিয়েছেন। আপনি কি এই পদক্ষেপ সমর্থন করছেন?

  • মন্তব্য নাই (11%, ১১ Votes)
  • না (16%, ১৭ Votes)
  • হ্যা (73%, ৭৬ Votes)

Total Voters: ১০৪

১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, খাদ্যের মতো রাজনীতিতেও ভেজাল ঢুকে পড়েছে। আওয়ামী লীগ দীর্ঘদিন ক্ষমতায় তাই এখানেও কিছু ভেজাল প্রবেশ করেছে। আপনি কি এই মন্তব্যের সাথে একমত ?

  • মন্তব্য নাই (2%, ৩ Votes)
  • না (8%, ১২ Votes)
  • হ্যা (90%, ১২৮ Votes)

Total Voters: ১৪৩

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন বলেছেন, বিএনপি একটি বট গাছ, এ গাছ থেকে দু’একটি পাতা ঝড়ে পরলে বিএনপির কিছু যাবে আসবে না , এ মন্তব্যের সাথে কি আপনি একমত ?

  • মতামত নেই (7%, ৩ Votes)
  • না (29%, ১২ Votes)
  • হ্যা (64%, ২৭ Votes)

Total Voters: ৪২

অনেক এনজিও অসৎ উদ্দেশ্যে রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। আপনি কি এই মন্তব্যের সাথে একমত ?

  • মতামত নাই (0%, ০ Votes)
  • না (19%, ৬ Votes)
  • হ্যা (81%, ২৫ Votes)

Total Voters: ৩১

ডাক্তারদের ফি বেধে দেয়ার সরকারের পরিকল্পনার সাথে আপনি কি একমত?

  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (6%, ২ Votes)
  • হ্যা (94%, ৩০ Votes)

Total Voters: ৩২

দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়তে মন্ত্রীসভায় প্রধানমন্ত্রী যে চমক এনেছেন তাতে কি আপনি খুশি ?

  • মতামত নাই (15%, ৫ Votes)
  • না (24%, ৮ Votes)
  • হ্যা (61%, ২১ Votes)

Total Voters: ৩৪

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠ ,নিরপেক্ষ হয়েছে বলে আপনি মনে করেন ?

  • হা (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (100%, ০ Votes)

Total Voters:

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠ ,নিরপেক্ষ হয়েছে বলে আপনি মনে করেন ?

  • মন্তব্য নাই (9%, ২ Votes)
  • হ্যা (18%, ৪ Votes)
  • না (73%, ১৬ Votes)

Total Voters: ২২

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিরপেক্ষ হবে বলে আপনি মনে করেন ?

  • মতামত নাই (5%, ২ Votes)
  • হ্যা (34%, ১৫ Votes)
  • না (61%, ২৭ Votes)

Total Voters: ৪৪

একবার ভোট বর্জন করায় অনেক খেসারত দিতে হয়েছে মন্তব্য করে আর নির্বাচন বয়কটের আওয়াজ না তুলতে জোট নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন গণফোরাম সভাপতি কামাল হোসেন, আপনি কি একমত ?

  • মতামত নাই (3%, ১ Votes)
  • না (6%, ২ Votes)
  • হা (91%, ৩২ Votes)

Total Voters: ৩৫

সংলাপ সফল হবে বলে আপনি মনে করেন ?

  • হা (13%, ২ Votes)
  • মতামত নাই (13%, ২ Votes)
  • না (74%, ১১ Votes)

Total Voters: ১৫

আপনি কি মনে করেন যে কোন পরিস্থিতিতে বিএনপি নির্বাচন করবে ?

  • মতামত নাই (7%, ৭ Votes)
  • না (23%, ২৩ Votes)
  • হ্যা (70%, ৭১ Votes)

Total Voters: ১০১

অাপনি কি কোটা সংস্কারের পক্ষে ?

  • মতামত নেই (3%, ১ Votes)
  • না (8%, ৩ Votes)
  • হ্যা (89%, ৩৩ Votes)

Total Voters: ৩৭

খালেদা জিয়ার মামলা লড়তে বিদেশি আইনজীবীর কোন প্রয়োজন নেই' বিএনপি নেতা আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেনের সাথে - আপনিও কি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ১ Votes)
  • না (27%, ৩ Votes)
  • হ্যা (64%, ৭ Votes)

Total Voters: ১১

আগামী সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিদেশিদের কোনো উপদেশ বা পরামর্শের প্রয়োজন নেই বলে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্য যৌক্তিক বলে মনে করেন কি?

  • মতামত নাই (7%, ১ Votes)
  • হ্যা (20%, ৩ Votes)
  • না (73%, ১১ Votes)

Total Voters: ১৫

এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব) অলি আহমাদ বলেন, এরশাদকে খুশি করতে বেগম জিয়াকে নাজিমউদ্দিন রোডের জেলখানায় নেয়া হয়েছে। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?

  • মতামত নাই (8%, ৫ Votes)
  • না (27%, ১৬ Votes)
  • হ্যা (65%, ৩৮ Votes)

Total Voters: ৫৯

আপনি কি মনে করেন আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহন করবে ?

  • না (13%, ৫৪ Votes)
  • হ্যা (87%, ৩৬২ Votes)

Total Voters: ৪১৬

আপনি কি মনে করেন বিএনপির‘র সহায়ক সরকারের রুপরেখা আদায় করা আন্দোলন ছাড়া সম্ভব ?

  • হ্যা (32%, ৪৫ Votes)
  • না (68%, ৯৫ Votes)

Total Voters: ১৪০

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের বিষয়টি সম্পূর্ণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপরে নির্ভরশীল, এ বিষয়ে অাপনার মন্তব্য কি ?

  • মন্তব্য নাই (7%, ২ Votes)
  • হ্যা (26%, ৭ Votes)
  • না (67%, ১৮ Votes)

Total Voters: ২৭

আপনি কি মনে করেন নির্ধারিত সময়ের আগে আগাম নির্বাচন হবে?

  • মন্তব্য নাই (7%, ১০ Votes)
  • হ্যা (31%, ৪৬ Votes)
  • না (62%, ৯১ Votes)

Total Voters: ১৪৭

হেফাজতকে বড় রাজনৈতিক দল বানানোর চেষ্টা চলছে বলে মন্তব্য করেছেন নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার। আপনি কি তার সাথে একমত?

  • মতামত নাই (10%, ৩ Votes)
  • না (34%, ১০ Votes)
  • হ্যা (56%, ১৬ Votes)

Total Voters: ২৯

“আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিলে দেশে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা কমে যাবে ”সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সাথে কি অাপনি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ৩ Votes)
  • না (32%, ১১ Votes)
  • হ্যা (59%, ২০ Votes)

Total Voters: ৩৪

আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধুর নাম ব্যবহার করে যারা সংগঠনের নামে দোকান খুলে বসেছে, তাদের ধরে ধরে পুলিশে দিতে হবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের আপনার প্রতিক্রিয়া কি ?

  • মতামত নাই (7%, ৩ Votes)
  • না (10%, ৪ Votes)
  • হ্যা (83%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৪২

ড্রাইভাররা কি আইনের উর্ধে ?

  • মতামত নাই (2%, ১ Votes)
  • হ্যা (14%, ৭ Votes)
  • না (84%, ৪৩ Votes)

Total Voters: ৫১

সার্চ কমিটিতে রাজনৈতিক দলের কেউ নেই- ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্য সমর্থন করেন কি?

  • মতামত নাই (5%, ৩ Votes)
  • হ্যা (31%, ১৭ Votes)
  • না (64%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৫৫