খুলছে মিতু হত্যার রহস্য
Sunday, 26th June , 2016, 12:59 pm,BDST
Print Friendly, PDF & Email

খুলছে মিতু হত্যার রহস্য



লাস্টনিউজবিডি, ২৬ জুন, ঢাকা: পুলিশ কর্মকর্তা বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যার রহস্যের জট খুলছে। একে একে ধরা পড়ছে হত্যাকা-ে অংশ নেয়া খুনিরা। উদ্ধার করা হয়েছে হত্যায় ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্রটিও। হত্যাকাণ্ডে শুধু মোটরসাইকেল আরোহী ওই তিনজনই নয়, আরও একাধিক ব্যক্তি জড়িত। শুরু থেকে হত্যার সঙ্গে জঙ্গি সম্পৃক্ততার কথা বলা হলেও আটকদের কাছ থেকে এ ধরনের কোনো তথ্য পায়নি পুলিশ।
প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, হত্যাকারীরা সবাই ভাড়াটে, টাকার বিনিময়ে তারা এ হত্যাকা- ঘটিয়েছে। তবে কেন এ হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে, সে ব্যাপারে পুলিশ এখনও ধোয়াশায়। তদন্ত সংশ্লিষ্ট একাধিক কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। যদিও মিতু হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও অস্ত্র উদ্ধারের বিষয়ে এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে মুখ খোলেনি পুলিশ। এ প্রসঙ্গে সিএমপি কমিশনার ইকবাল বাহার বলেন, আজ-কালের মধ্যে প্রেস ব্রিফিং করে আপনাদের বিস্তারিত জানাতে পারব।

তদন্ত সংশ্লিষ্ট অপর এক কর্মকর্তা বলেন, মিতু হত্যার সব রহস্য উদ্ঘাটন হয়েছে। আসামি গ্রেফতার হয়েছে। উদ্ধার হয়েছে অস্ত্রও। যে কোনো সময় সাংবাদিকদের সামনে আটক ব্যক্তিদের হাজির করা হবে। জানা গেছে, মিতু হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে এ পর্যন্ত ৬ জনকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার রানীরহাট এলাকার বাসিন্দা আবু মুছা (৪৫) ও নগরীর বাকলিয়া থানাধীন রাজাখালী এলাকার বাসিন্দা এহতেশামুল হক ভোলা (৩৮) নামে দু’জন রয়েছে।

এ দু’জনের পরিবারের সদস্যরা জানান, আবু মুছাকে মঙ্গলবার সকালে চকবাজার এলাকা থেকে আর এহতেশামুল হক ভোলাকে একই দিন বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে রাজাখালী গুলবাহার কমিউনিটি সেন্টারের সামনে থেকে পুলিশ পরিচয়ে আটক করা হয়। পুলিশ সূত্র জানায়, আটক ছয়জনকে নিয়ে চলছে পুলিশের অভিযান। চারজনের বাড়ি রাঙ্গুনিয়া ও একজনের বাড়ি হাটহাজারী উপজেলায়। এর মধ্যে দু’জন ২০১২ সালে রাঙ্গুনিয়ায় সংঘটিত দুটি হত্যা মামলার আসামি। তারা দীর্ঘদিন কারাগারে ছিল। পুলিশের বিভিন্ন ইউনিট, র‌্যাব, সিআইডি, ডিবি, পিবিআই, কাউন্টার টেররিজমের লোকজন তাদের কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

এদিকে বাকলিয়া থানাধীন খাতুনগঞ্জের কয়েকজন বাসিন্দা জানিয়েছেন, ভোলার দেয়া স্বীকারোক্তিতে মিতু হত্যায় ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্রসহ দুটি অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে। মিতুকে হত্যার পর অস্ত্রটি খাতুনগঞ্জের মাহবুব কলোনির এক রিকশাচালকের কাছে জমা রাখা হয়।
লাস্টনিউজবিডি, আরজে

Print Friendly, PDF & Email

মতামত দিন

মতামত দিন

পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >
আর্কাইভ
মতামত
বাংলাদেশে সাংবাদিকতার সঙ্কট ও সম্ভাবনা: বর্তমান প্রেক্ষিত
।।মনজুরুল আহসান বুলবুল।। গণমাধ্যম বা সাংবাদিকত...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ সড়ক দাবীতে কুড়িগ্রামে মানববন্ধন
  • কুড়িগ্রামে পৈতৃক সম্পত্তি রক্ষায় কৃষক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন
  • স্বামী পরিত্যক্তা নারীকে ধর্ষণ: যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

[page_polls]