বৈরী আবহাওয়া: পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ফেরি পারের অপেক্ষায় সহস্রাধিক যানবাহন
Friday, 23rd October , 2020, 07:41 pm,BDST
Print Friendly, PDF & Email

বৈরী আবহাওয়া: পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় ফেরি পারের অপেক্ষায় সহস্রাধিক যানবাহন



মানিকগঞ্জ প্রতিনিধিঃ বৈরী আবহাওয়া, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌ-রুটে ফেরি চলাচলে অচলাবস্থা, পূজা ও সাপ্তাহিক ছুটির কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে যানবাহনের চাপ কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। বিপুল সংখ্যক যানবাহন পারাপার করতে হিমশিম খাচ্ছে কর্তৃপক্ষ। এতে উভয়ঘাটে সহস্রাধিক যানবাহন ফেরি পারের অপেক্ষায় রয়েছে।

আজ শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পাটুরিয়া ও দৌলতদিয়া ঘাটে সহস্রাধিক পন্যবাহী ট্রাক ও বাস ফেরি পারের অপেক্ষায় রয়েছে। ফলে, ঘাটে এসে আটকা থেকে বৃষ্টির মধ্যে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে যাত্রী ও যানবাহন শ্রমিকদের। বিশেষ করে ট্রাক শ্রমিকদের দুর্ভোগের সীমা নেই।

শুক্রবার ঘাট এলাকা সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, বৈরী আবহাওয়ায় কারণে বৃষ্টিতে ভিজে অনেকেই ফেরি পারের জন্য অপেক্ষা করছে। দীর্ঘ সময় বাসের বসে থেকে অনেকের ভিভিন্ন ধরণের সমস্যা হচ্ছে। বিশেষ করে নারী ও শিশু যাত্রীদের বেশি দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। তাদের খাওয়া-দাওয়ার সমস্যা হচ্ছে। খাবার পানি আনতে গেলেও বৃষ্টিতে ভিজে দোকান থেকে সেটা কিনে আনতে হচ্ছে। কয়েকজন বাস যাত্রী বলেন, সেই সকালে ঘাটে এসে পৌঁছাছেন। অনেক সময় ধরে বাসের মধ্যে বসে ফেরি পারের জন্য অপেক্ষা করছেন। কখন যে ফেরি পার হতে পারবেন সেটাও বলতে পারছেন না। দুপুরের খাওয়া নিয়েও সমস্যা হচ্ছে। কয়েকজন ট্রাক

শ্রমিক বলেন, ঘাটে এসে আটকা পড়ে বসে থাকতে হলে তাদের থাকা ও খাওয়ার মারাত্মক সমস্যা হয়। তাদের রাস্তার হিসাব করে মালিক খরচের জন্য দেয় তার চেয়ে অনেক বেশি টাকা খরচ হয়। এছাড়া, তাদের খাওয়া- গোসলের সমস্যা তো আছেই। কখন যে ফেরির নাগাল পাবে তারও ঠিক নেই। ঘাট এলাকা ঘুরে আরোও দেখা যায়, শুক্রবার সকালের দিকে ছোট গাড়ির চাপ বৃদ্ধি পায়। দুপুরের দিকে যানবাহনের চাপ আরোও বেশি বৃদ্ধি পায়। ফলে, পাটুরিয়া ও দৌলতদিয়া ঘাটে অপেক্ষমান যানবাহনের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে টার্মিনাল ছাপিয়ে মহাসড়কে লাইনে গড়ায়।

যশোরগামী ট্রাক চালক ফরিদ উদ্দিন জানান, শুক্রবার শেষ রাতের দিকে পাটুরিয়া ঘাটে এসে পৌঁছাতে পেরেছি। এখন প্রায় দুপুর হয়ে আসলো। কিন্তু কখন যে ফেরি পারের জন্য সিরিয়াল পাবো সেটা বুঝতে পারছি না। দীর্ঘ সময় গাড়ি চালিয়ে এসে বৃষ্টির মধ্যে ফেরি ঘাটে অপেক্ষা করছি। এতে, দুপুরের খাওয়া-গোসলেরও সমস্যা হচ্ছে।

ফরিদুপুরগামী বাস যাত্রী রেজাউল করিম জানান, স্ত্রী ও ছোট এক কন্যাসহ তিনি বাড়ি যাচ্ছেন। ৩/৪ ঘন্টা যাবৎ ঘাটে এসে বসে রয়েছেন। কন্যা শিশুটিও কান্না করছে। খাওয়ার কিছু কিনতে গেলেও বৃষ্টিতে ভিজতে হচ্ছে। টয়লেটসহ নানা সমস্যায় ভুগতে হচ্ছে।

বিআইডবিøউটিসির আরিচা অফিস সুত্রে জানা যায়, পাটুরিয়া- দৌলতদিয়া নৌরুটে বহরের ১৯টি ফেরির মধ্যে ১৮টি দিয়ে বিপুল সংখ্যক যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। ফেরিগুলো পুরনো হওয়ায় মাঝে মাঝে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে স্থানীয় ভাসমান কারখানা মধুমতিতে সাময়িক মেরামতে রাখা হচ্ছে। যাত্রীবাহী যানবাহনগুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পার করা হয়। ফলে মালবাহী ট্রাকগুলো অপেক্ষায় রাখতে হচ্ছে।

বিআইডবিøউটিসির আরিচা অঞ্চলের ডিজিএম জিল্লুর রহমান জানান, গত দুই দিনের বৈরী আবহাওয়া ও শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌ-রুটের বাড়িতি যানবাহন, পূজা ও সাপ্তাহিক ছুটির কারনে যানবাহনের চাপ বৃদ্ধি পেয়েছে। ১৮টি ফেরি দিয়ে বিপুল সংখ্যক যানবাহনের চাপ মোকাবেলা করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

বিআইডবিøউটিসির উভয় ঘাটের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পাটুরিয়া প্রান্তে ৬ শতাধিক যানবাহন ও দৌলতদিয়া প্রান্তে ৪ শতাধিক যানবাহন ফেরি পারের অপেক্ষায় রয়েছে । সব মিলিয়ে পাটুরিয়া ও দৌলতদিয়া ঘাটে
সহস্রাধিক যানবাহন ফেরি পারের অপেক্ষায় রয়েছে।

এদিকে, পাটুরিয়া ঘাটের যানজট এড়াতে পাটুরিয়া ঘাট সংযোগ মোড় উথুলী থেকে মালবাহী ট্রাকগুলোকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের আরিচা পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার রাস্তায় লাইনে সারিবদ্ধভাবে আটকে রাখা হয়েছে। এ সময় ট্রাক শ্রমিকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা
তমুল বৃষ্টির মধ্যে ঘাটে এখনো পৌঁছাতে পারেননি। তাই রাস্তায় গাড়ি লাইনে রেখে অপেক্ষা করতে হচ্ছে। এতে তাদের খাওয়াসহ নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে।

স্থানীয় যাত্রীরা অভিযোগ করে বলেন, ট্রাকগুলোকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে রাখায় তাদের যাতায়াতে মারাত্মকভাবে সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। এতে তাদের বিভিন্ন রকম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে।

অপরদিকে, দৌলতদিয়া ঘাটের যানজট কমাতে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া- খুলনা মহাসড়কের দৌলতদিয়া এলাকায় ও রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের গোয়ালন্দ মোড়ে মালবাহী ট্রাকগুলোকে আটকে রাখা হয়েছে।

এমএ

Print Friendly, PDF & Email

You must be logged in to post a comment Login

পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

জার্মানির বার্লিন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় দেখা গেছে, নাক দিয়েও মস্তিস্কে করোনা হানা দেয়। আপনি কি মনে করেন মস্তিস্কে করোনার আক্রমণ রক্ষার্থে মাস্ক ই যথেষ্ট?

View Results

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
যুবলীগের নতুন নেতৃত্বঃ পরশের পরশ ছোঁয়ায় জেগে উঠুক কোটি তরুণ
।।মানিক লাল ঘোষ।।"আমার চেষ্টা থাকবে যুব সমাজ যেনো...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য উচ্ছেদের হুমকি প্রদানকারীদের বিচারের দাবি
  • দিবালোকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের জমি দখলের অভিযোগ
  • রেলের উচ্ছেদ হওয়া ১৫০ পরিবারের পূণর্বাসন বন্দোবস্ত

জার্মানির বার্লিন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় দেখা গেছে, নাক দিয়েও মস্তিস্কে করোনা হানা দেয়। আপনি কি মনে করেন মস্তিস্কে করোনার আক্রমণ রক্ষার্থে মাস্ক ই যথেষ্ট?

  • হ্যা (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (100%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: ডিসেম্বর ২, ২০২০ @ ৩:১৯ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

মডার্নার, ফাইজারের করোনা ভাইরাসের টিকার মধ্যে মডার্নার টিকার উপর কি আপনার আস্থা বেশি ?

  • মতামত নাই (100%, ১ Votes)
  • হ্যা (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: ডিসেম্বর ২, ২০২০ @ ৯:১৯ পূর্বাহ্ন
End Date: No Expiry

মার্কিন টিকা প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান মডার্নার দাবি করেছেন অত্যধিক ঝুঁকিপূর্ণ রোগীর ওপর এ টিকা ১০০ শতাংশ কাজ করেছে। আপনি কি শতভাগ ফলপ্রসু মনে করেন?

  • হ্যা (100%, ১ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (0%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: ডিসেম্বর ১, ২০২০ @ ১২:৫১ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

ফাইজার, অক্সফোর্ড, রাশিয়ান, চায়নার ভ্যাকসিনগুলোকে আপনি কি করোনা প্রতিরোধক কার্যকর টিকা বলে মনে করেন?

  • না (67%, ২ Votes)
  • মতামত নাই (33%, ১ Votes)
  • হ্যা (0%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: নভেম্বর ২৯, ২০২০ @ ৫:২৮ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

ফাইজার, অক্সফোর্ড, রাশিয়ান ইন, চায়না ভ্যাকসিনগুলোকে আপনি কি করোনা প্রতিরোধক কার্যকর টিকা বলে মনে করেন?

  • হ্যা (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (100%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: নভেম্বর ২৯, ২০২০ @ ৪:৫৭ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

 Page ১ of ২  ১  ২  »