জলবায়ু অধিবাসীদের অস্বাস্থ্যকর বস্তির জীবন যাপন
Thursday, 24th September , 2020, 08:46 am,BDST
Print Friendly, PDF & Email

জলবায়ু অধিবাসীদের অস্বাস্থ্যকর বস্তির জীবন যাপন



।।কারিশমা আমজাদ।।

ঘনবসতিপূর্ন মানুষের দেশ বাংলাদেশ, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোর অন্যতম। এদেশের স্বল্প উন্নয়ন, উচ্চ জনসংখ্যার ঘনত্ব এবং অপর্যাপ্ত অবকাঠামো সবই এই জাতিকে ক্ষতির পথে ধাবিত করছে। পাশাপাশি যে অর্থনীতি কৃষকের উপর নির্ভরশীল তাও আজ ক্ষতির পথে। জলবায়ু পরিবর্তন একদিকে যেমন অবকাঠামো এবং সম্প্রদায়গুলিকে ধংস করছে তেমনি ভাবে পরিবর্তন করেছে জীবিকা, আর একই সাথে তাদের বাধ্য করেছে আদি নিবাস ছেড়ে আসতে।

বন্যা, ঘুর্ণিঝড়, খরা, জলোচ্ছ্বাস, টর্নেডো, ভূমিকম্প, নদী ভাঙন, জলাবদ্ধতা ও পানি বৃদ্ধি এবং মাটির লবণাক্ততাকে প্রধান প্রাকৃতিক বিপদ হিসেবে চিহ্নিত করেছে বাংলাদেশ সরকার। এসকল জলবায়ু পরিবর্তন জনিত দূর্যোগে আক্রান্ত হত দরিদ্র মানুষ তুলনামূক উন্নত জীবন যাপনের আশায় স্থানান্তরিত হয়ে নগর বস্তিতে বসবাস শুরু করে। ধারনা করা হয়, প্রতিবছর ৩ লক্ষ থেকে ৪ লক্ষ মানুষ বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে নুতুন ভাবে স্থানান্তরিত হয়।

বস্তিবাসী ও ভাসমান লোক গণনায় বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) ২০১৪ সালের শুমারি অনুযায়ী সারাদেশে বস্তির সংখ্যা ১৩ হাজার ৯৩৫টি। বস্তিতে বসবাস মানুষের সংখ্যা ২২ লাখ ৩২ হাজার। এর মধ্যে প্রায় ১১ লাখ ৪৪ হাজার পুরুষ, ১০ লাখ ৮৬ হাজার নারী এবং ১ হাজার ৮৫২ জন হিজড়া। বিবিএসের প্রতিবেদনে বলা হয়, ঢাকা বিভাগে সবচেয়ে বেশি ১০ লাখ ৬২ হাজার ২৮৪ জন বস্তিতে বাস করে। ঢাকায় বস্তির সংখ্যা ৩ হাজার ৩৯৪টি। তবে এর মধ্যে ঠিক কতজন জলবায়ু পরিবর্তনে স্থানান্তরিত হয়ে এসেছে সেই পরিসংখ্যান কোথায় উঠে আসেনি।

মহাখালীতেই বাংলাদেশের দুটি বড় বস্তি রয়েছে, যার একটি কড়াইল বস্তি ও অপরটি সাততলা বস্তি হিসেবে পরিচিত। কড়াইল বস্তিতে বিবিএস-এর ২০১৪ সালের করা জরিপের তথ্য অনুযায়ী, সেখানে ১০ হাজার ২২২টি ঘর বা খানা রয়েছে। এসব খানায় ৩৬ হাজার ৭১৯ জন বাস করেন। কিন্তু স্থানীয় বস্তি উন্নয়ন কমিটির নেতারা বলছেন, এই বস্তিতে ১২ হাজার ঘর রয়েছে। বস্তির লোকসংখ্যা প্রায় আড়াই লাখের মতো।

একই অবস্থা মহাখালীর সাততলা বস্তির ক্ষেত্রেও। বিবিএস এর ২০১৪ সালের বস্তি শুমারির তথ্য বলছে, এই বস্তিতে ঘরসংখ্যা ছয় হাজার ৮৪৫টি। এসব ঘরে চার হাজার ৩৭৩টি পরিবারের বসবাস। জনসংখ্যা ২১ হাজার ৮৬৯। তবে প্রকৃত সংখ্যা আরও অনেক বেশি। এই বস্তিটি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ২০ নম্বর ওয়ার্ডের আওতাধীন।

বস্তিগুলোতে সরু গলি আর ছোট ছোট ঘর। এখানে একটি ছোট্ট ঘরে ৪-৫ জন কখনো বা ৬ থেকে ৮ জন লোক এক সঙ্গে ঘুমায়। তাদের আসা যাওয়ার পথে এক জনের সাথে আরেকজনের শরীর লেগে যায়। একদিকে ঘিঞ্জি বসবাসের স্থান ঠিক তেমনি অস্বাস্থ্যকর টয়লেট ব্যবস্থা। বেশিরভাগ বস্তিতে ১০ থেকে ১২ পরিবারের জন্য একটি মাত্র বাথরুম এবং দুটি ল্যাট্রিন রয়েছে। সেই সাথে বস্তি এলাকা গুলোতে পানির সরবরাহও অপর্যাপ্ত। বস্তিতে একই সঙ্গে একাধিক ঘরের বাসিন্দাকে রান্না করতে হয়। প্রতি ৫ টি পরিবারের জন্য রান্না করার জন্য কেবল দুটি চুলা রয়েছে। কাপড় কাচা, শুকাতে দেওয়া, গোসল টয়লেট সবই ব্যবহার করতে হয় একই স্থানে সাবাইকে। এক কথায় ঠাসাঠাসি করেই থাকতে হয় রাজধানীর প্রায় সকল বস্তিগুলোতে।

ইতি মধ্যেই প্রমান হয়ে গিয়েছে, বস্তি এলাকায় বসবাসরত এই সকল দরিদ্র জলবায়ু পরিবর্তনে স্থানান্তরিত ব্যক্তিদের মাঝেও পুষ্টিহীনতা, ডায়রিয়া, চর্মরোগসহ বিভিন্ন ছোঁয়াচে রোগ যেমন সচারচর সবার মধ্যে লেগেই থাকে তেমনি ভাবে উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ, স্থূলত্ব বা ডায়াবেটিসের মতো রোগগুলো যে তাদের মধ্যে নেই তা বলা যাবে না। বরং এসব রোগাক্রান্ত ব্যক্তিদের রোগের সঠিক চিকিৎসা গ্রহন করার প্রতি সচেতন মনভাব নেই বা গ্রহনে অনিহায় বা দারিদ্র্যের মধ্যে বসবাসকারী জনগোষ্ঠীর এসব রোগকে অবহেলা করতেই বেশি দেখা যায়।

প্রতিটি বস্তির পরিবেশ জনস্বাস্থ্যের পক্ষে খুব বেশি অনুকূল বলে মনে হয় না। সরু রাস্তাগুলির চারদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে ডাস্টবিনগুলি। বস্তি এলাকায় ছোট ছোট হোটেল রয়েছে যার মধ্যে অনেকগুলি ডাস্টবিনের পাশে। এসকল হোটেল গুলিতে বেধিভাগই একই তেল বারবার ব্যবহার করে তেলে ভাজা খাদ্যপন্যই তৈরী করতেই দেখা যায়। আর ছোট ছোট চায়ের দোকান যেন কিছু দূর পর পর আছেই। যেগুলিতে অধিকাংশ সময় চা বিডির আড্ডা চলতেই থাকে। বাজারের জায়গাগুলির সব জায়গাতেই মাছি উড়তে দেখা যায়।

শিশুরা বস্তি এলাকায় হরহামেশাই ঘুরে বেড়াই। প্রতিটি বস্তিতে শিশুদের ঘুরেবেডানোর জায়গাই হাওয়াই মিঠায়, বিভিন্ন ক্যান্ডি এবং আলুর চিপস ফেরি করে বিক্রি করতে দেখা যায়। যেগুলো তারা প্রতিনিয়তই কিনে খায়। আর এই সকল খাদ্য পন্যগুলিতে ব্যবহার করা হয় নিম্নমানের খাদ্র সামগ্রী ও রং, সেইগুলি তৈরী করে থাকে স্বাস্থ্যকর পরিবেশেই। বস্তি এলাকায় শিশুসহ প্রায় অধিকাংশ অধিবাসীর পোশাক পরিচ্ছদ আর নোংরা হাতগুলি প্রমাণ করে যে বাচ্চাদের স্বাস্থ্যবিধি অনুশীলনের খুব একটা অনুসরন করছে না।

রাজধানীসহ দেশের সব বস্তিতেই প্রায় একই চিত্র। রাজধানীর কড়াইল বস্তি, ভাসানটেক বস্তি, কল্যাণপুর পোড়াবস্তি, মিরপুরের বেগুনটিলা বস্তি, বিএনপি বস্তি, শাহজাদপুর ঝিলপাড় ও খালপাড় বস্তি, মহাখালীর সাততলা বস্তিসহ সব বস্তিরই একই অবস্থা। বস্তির মানুষের সঙ্গে কথা বলেলে জানা যায়, নদীভাঙন ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার প্রত্যেক স্থানান্তরিত প্রায় প্রত্যেকেই কোন একটি পরিস্থিতিরত সমক্ষিন হয়েই ঢাকায় চলে আসে না, নিজ এলাকায় টিকে থাকার আপ্রান চেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে ঋনের দায় আর মেটাতে পারেনা। জীবন আর জীবিকার সন্ধানে গ্রাম ছেড়ে শহরে ছুটতে হয় দেশের এই ছিন্নমূল, ভূমিহীন ও বেকার মানুষগুলোকে। খেটে খাওয়া হতদরিদ্র মানুষগুলো কাজের আশায় শহরে এসে মাথা গোঁজার ঠাঁই হিসেবে আশ্রয় নিচ্ছে বস্তিতে।

খাল পাড় শাহজাদপুর বস্তির পারুল মনের ক্ষোভ প্রকাশ করে বলে, “বস্তিতে যারা থাকে তাদের অনেকেরই গ্রামে বাড়ী ঘর আছে। তারা বছরে দু’একবার গ্রামের বাড়ী যায়, বিশেষ করে ধান স্বিদ্ধ করার মৌসুম আসলে তো যায়ই। আমার বাড়ী ঘর কিছুই নেই। আমারা চাইলেই কোথাও যেতে পারি না। তাই বস্তিতেই পড়ে থাকতে হয়”। দুই মেয়ে আর এক ছেলে দিয়ে তার সংসার। আনুমানিক ৯০ বর্গফুটের একটা ঘরে থাকেন। স্বামী মুনিরুল দিন মজুর। সব সময় যে কাজ মিল তা না। বাসাবাড়িতে কাজ করে দিন কাটায় পারুল বেগম। তবে চাকুরীর যে নিশ্চয়তা আছেন তা নয়। মাস গেলে এই ছোট ঘরটাতেই ভাড়া দিতে হয় ৪০০০ হাজার টাকা। সাথে আলাদা করে বিদ্যুৎ বিল তো আছেই। বস্তিতে সবাইকে প্রতিটি কাজের জন্য লম্বা লাইন দিতে হয়। তিনি আরও বলছেন, “ধরেন চারটা চুলা আমাদের এইখানে। যেমন চারজন চাইরটা তরকারি বসাইছে। তাদের রান্না শেষ না হলে তো আমারে জায়গা দেবে না। একজনের পর একজন রান্না করে। অনেক সিরিয়াল দিতে হয়। এই ঘটনা টয়লেট, গোসলখানা, পানির কল সবখানেই। এমন কি কিছু থেকে কিছু উনিশ বিশ হলেই বাড়ি ছাড়তে কয় বাড়ী ওয়ালা।”

বস্তির সরু গলিতে দুজন পাশাপাশি কোনরকমে হাঁটতে হয়। এখানে সেখানে আবর্জনা যে যখন ইচ্ছা মত ফেলে। টয়লেট আর গোসল করার জায়গাগুলোর এতটাই করুণ অবস্থা সেদিকে তাকানো মুশকিল। এখানকার মানুষগুলোর এর বাইরে আর কোন উপায়ও নেই। বাড়ীর মালিকের যেমনে এ বিষয় গুলি নিয়ে মাথা ঘামান না ঠিক তেমন বস্তি বাসিন্দাদেরও এবিষয়গুলি চিন্তার বিষয় নয়।

কাজের উৎস ও উন্নয়ন মূলত শহর কেন্দ্রিক হওয়ার কারণেই জলাবায়ু পরিবর্তন জনিত দূর্যোগে বিপর্যস্থ জনগোষ্ঠী শহর মুখি হচ্ছে। পরিস্থিতি সামনে আরও জটিল হবে। গবেষণা বলছে, ২০৫০ সাল নাগাদ অর্ধেকের বেশি লোক শহরে বসবাস করবে। গ্রাম শহর হয়ে যাবে সেজন্য নয় বরং মানুষ শহরমুখি হচ্ছে বলেই এটা হবে। এই থেকেই আমরা বুঝতে পারি শহরের উপরে যে চাপের পরিস্থিতি সামনে দিন গুলিতে ধেয়ে আসছে, সেটা কতটা গভীর ও তীব্র।

শহরের বস্তিগুলিতে শুধু যে জলবায়ু অধিবাসী বসবাসরত তা কিন্তু নয় বরং জলবায়ু পরিবর্তন ব্যতিত স্থানান্তরিত ব্যক্তির সংখ্যায় কম নয়। পরিসংখ্যান ব্যুরোর একটি জরিপে দেখা যাচ্ছে, প্রায় ৩০% এসেছেন দারিদ্রের কারণে। প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা নদী ভাঙনের কারণে এসেছেন বাকিরা। দেশের মোট বস্তিবাসীর প্রায় ৯০% ভূমিহীন। বস্তির খুপড়ি ছোট্ট ঘরে বসবাস করা এই সকল ভিটামাটি হীন দরিদ্র মানুষগুলি একপ্রকার যেন গৃহহীন।

লেখক: কারিশমা আমজাদ
কলাম লেখক, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ও
পি এইচ ডি ফেলো, সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।
Email: sristy70@gmail.com
Print Friendly, PDF & Email

মতামত দিন

মতামত দিন

পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

করোনার বুলেটিন না প্রকাশের সাথে আপনি কি একমত ?

ফলাফল দেখুন

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
বাংলাদেশ-মিয়ানমার : সামরিক শক্তিতে কে এগিয়ে?
বাংলাদেশ-মিয়ানমারের মধ্যে কখনো সরাসরি যুদ্ধ না বা...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • রংপুরে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ: গ্রেফতার আরও ২জন
  • দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রকে বলাৎকার করেছে এক কিশোর
  • প্রেমিকাকে গণধর্ষণ: পুলিশ কর্মকর্তা সাময়িক বরখাস্ত

করোনার বুলেটিন না প্রকাশের সাথে আপনি কি একমত ?

  • মতামত নাই (11%, ১১ Votes)
  • হ্যা (30%, ২৯ Votes)
  • না (59%, ৫৬ Votes)

Total Voters: ৯৬

করেনার বুলেটিন না প্রকাশের সাথে আপনি কি একমত ?

  • মতামত নাই (0%, ০ Votes)
  • হ্যা (0%, ০ Votes)
  • না (100%, ০ Votes)

Total Voters:

ঈদ উদযাপনের চেয়ে বেঁচে থাকার লড়াইটা এই মুহূর্তে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। আপনি কি একমত ?

  • মতামত নাই (12%, ১৪ Votes)
  • না (16%, ১৯ Votes)
  • হ্যা (72%, ৮৬ Votes)

Total Voters: ১১৯

ত্রাণ নিয়ে সমালোচনা না করে হতদরিদ্রদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর, এই আহবানের সাথে কি আপনি একমত ?

  • মতামত নাই (4%, ২ Votes)
  • না (16%, ৮ Votes)
  • হ্যা (80%, ৪১ Votes)

Total Voters: ৫১

যাদের প্রচুর টাকা-পয়সা, ধন-দৌলতের অভাব নেই তারা কীভাবে আন্দোলন করবে? বিএনপির ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদের। আপনি কি এই মন্তব্যের সাথে একমত ?

  • মতামত নাই (15%, ১০ Votes)
  • না (21%, ১৪ Votes)
  • হ্যা (64%, ৪৪ Votes)

Total Voters: ৬৮

বিএনপির কর্মীরা নেতাদের প্রতি আস্থা হারিয়েছেন,জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রবের বক্তব্যের সাথে আপনি কি একমত ?

  • মন্তব্য নেই (21%, ৩ Votes)
  • না (21%, ৩ Votes)
  • হ্যা (58%, ৮ Votes)

Total Voters: ১৪

অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে বিএসটিআই‌‌‍‍র এখন গতিশীল ফিরে এসেছে এই কথার সাথে কি আপনি একমত ?

  • হ্যা (14%, ১ Votes)
  • একমত না (29%, ২ Votes)
  • না (57%, ৪ Votes)

Total Voters:

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ হবে বলে আপনি কি মনে করেন ?

  • মতামত নেই (13%, ৬ Votes)
  • না (43%, ২০ Votes)
  • হ্যা (44%, ২১ Votes)

Total Voters: ৪৭

দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শক্ত অবস্থান নিয়েছেন। এজন্য তার অনেক আত্মীয়-স্বজনকে গণভবনে ঢোকা বন্ধ করে দিয়েছেন। আপনি কি এই পদক্ষেপ সমর্থন করছেন?

  • মন্তব্য নাই (11%, ১১ Votes)
  • না (16%, ১৭ Votes)
  • হ্যা (73%, ৭৬ Votes)

Total Voters: ১০৪

১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, খাদ্যের মতো রাজনীতিতেও ভেজাল ঢুকে পড়েছে। আওয়ামী লীগ দীর্ঘদিন ক্ষমতায় তাই এখানেও কিছু ভেজাল প্রবেশ করেছে। আপনি কি এই মন্তব্যের সাথে একমত ?

  • মন্তব্য নাই (2%, ৩ Votes)
  • না (8%, ১২ Votes)
  • হ্যা (90%, ১২৮ Votes)

Total Voters: ১৪৩

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন বলেছেন, বিএনপি একটি বট গাছ, এ গাছ থেকে দু’একটি পাতা ঝড়ে পরলে বিএনপির কিছু যাবে আসবে না , এ মন্তব্যের সাথে কি আপনি একমত ?

  • মতামত নেই (7%, ৩ Votes)
  • না (29%, ১২ Votes)
  • হ্যা (64%, ২৭ Votes)

Total Voters: ৪২

অনেক এনজিও অসৎ উদ্দেশ্যে রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। আপনি কি এই মন্তব্যের সাথে একমত ?

  • মতামত নাই (0%, ০ Votes)
  • না (19%, ৬ Votes)
  • হ্যা (81%, ২৫ Votes)

Total Voters: ৩১

ডাক্তারদের ফি বেধে দেয়ার সরকারের পরিকল্পনার সাথে আপনি কি একমত?

  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (6%, ২ Votes)
  • হ্যা (94%, ৩০ Votes)

Total Voters: ৩২

দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়তে মন্ত্রীসভায় প্রধানমন্ত্রী যে চমক এনেছেন তাতে কি আপনি খুশি ?

  • মতামত নাই (15%, ৫ Votes)
  • না (24%, ৮ Votes)
  • হ্যা (61%, ২১ Votes)

Total Voters: ৩৪

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠ ,নিরপেক্ষ হয়েছে বলে আপনি মনে করেন ?

  • হা (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (100%, ০ Votes)

Total Voters:

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠ ,নিরপেক্ষ হয়েছে বলে আপনি মনে করেন ?

  • মন্তব্য নাই (9%, ২ Votes)
  • হ্যা (18%, ৪ Votes)
  • না (73%, ১৬ Votes)

Total Voters: ২২

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিরপেক্ষ হবে বলে আপনি মনে করেন ?

  • মতামত নাই (5%, ২ Votes)
  • হ্যা (34%, ১৫ Votes)
  • না (61%, ২৭ Votes)

Total Voters: ৪৪

একবার ভোট বর্জন করায় অনেক খেসারত দিতে হয়েছে মন্তব্য করে আর নির্বাচন বয়কটের আওয়াজ না তুলতে জোট নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন গণফোরাম সভাপতি কামাল হোসেন, আপনি কি একমত ?

  • মতামত নাই (3%, ১ Votes)
  • না (6%, ২ Votes)
  • হা (91%, ৩২ Votes)

Total Voters: ৩৫

সংলাপ সফল হবে বলে আপনি মনে করেন ?

  • হা (13%, ২ Votes)
  • মতামত নাই (13%, ২ Votes)
  • না (74%, ১১ Votes)

Total Voters: ১৫

আপনি কি মনে করেন যে কোন পরিস্থিতিতে বিএনপি নির্বাচন করবে ?

  • মতামত নাই (7%, ৭ Votes)
  • না (23%, ২৩ Votes)
  • হ্যা (70%, ৭১ Votes)

Total Voters: ১০১

অাপনি কি কোটা সংস্কারের পক্ষে ?

  • মতামত নেই (3%, ১ Votes)
  • না (8%, ৩ Votes)
  • হ্যা (89%, ৩৩ Votes)

Total Voters: ৩৭

খালেদা জিয়ার মামলা লড়তে বিদেশি আইনজীবীর কোন প্রয়োজন নেই' বিএনপি নেতা আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেনের সাথে - আপনিও কি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ১ Votes)
  • না (27%, ৩ Votes)
  • হ্যা (64%, ৭ Votes)

Total Voters: ১১

আগামী সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিদেশিদের কোনো উপদেশ বা পরামর্শের প্রয়োজন নেই বলে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্য যৌক্তিক বলে মনে করেন কি?

  • মতামত নাই (7%, ১ Votes)
  • হ্যা (20%, ৩ Votes)
  • না (73%, ১১ Votes)

Total Voters: ১৫

এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব) অলি আহমাদ বলেন, এরশাদকে খুশি করতে বেগম জিয়াকে নাজিমউদ্দিন রোডের জেলখানায় নেয়া হয়েছে। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?

  • মতামত নাই (8%, ৫ Votes)
  • না (27%, ১৬ Votes)
  • হ্যা (65%, ৩৮ Votes)

Total Voters: ৫৯

আপনি কি মনে করেন আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহন করবে ?

  • না (13%, ৫৪ Votes)
  • হ্যা (87%, ৩৬২ Votes)

Total Voters: ৪১৬

আপনি কি মনে করেন বিএনপির‘র সহায়ক সরকারের রুপরেখা আদায় করা আন্দোলন ছাড়া সম্ভব ?

  • হ্যা (32%, ৪৫ Votes)
  • না (68%, ৯৫ Votes)

Total Voters: ১৪০

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের বিষয়টি সম্পূর্ণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপরে নির্ভরশীল, এ বিষয়ে অাপনার মন্তব্য কি ?

  • মন্তব্য নাই (7%, ২ Votes)
  • হ্যা (26%, ৭ Votes)
  • না (67%, ১৮ Votes)

Total Voters: ২৭

আপনি কি মনে করেন নির্ধারিত সময়ের আগে আগাম নির্বাচন হবে?

  • মন্তব্য নাই (7%, ১০ Votes)
  • হ্যা (31%, ৪৬ Votes)
  • না (62%, ৯১ Votes)

Total Voters: ১৪৭

হেফাজতকে বড় রাজনৈতিক দল বানানোর চেষ্টা চলছে বলে মন্তব্য করেছেন নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার। আপনি কি তার সাথে একমত?

  • মতামত নাই (10%, ৩ Votes)
  • না (34%, ১০ Votes)
  • হ্যা (56%, ১৬ Votes)

Total Voters: ২৯

“আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিলে দেশে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা কমে যাবে ”সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সাথে কি অাপনি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ৩ Votes)
  • না (32%, ১১ Votes)
  • হ্যা (59%, ২০ Votes)

Total Voters: ৩৪

আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধুর নাম ব্যবহার করে যারা সংগঠনের নামে দোকান খুলে বসেছে, তাদের ধরে ধরে পুলিশে দিতে হবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের আপনার প্রতিক্রিয়া কি ?

  • মতামত নাই (7%, ৩ Votes)
  • না (10%, ৪ Votes)
  • হ্যা (83%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৪২

ড্রাইভাররা কি আইনের উর্ধে ?

  • মতামত নাই (2%, ১ Votes)
  • হ্যা (14%, ৭ Votes)
  • না (84%, ৪৩ Votes)

Total Voters: ৫১

সার্চ কমিটিতে রাজনৈতিক দলের কেউ নেই- ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্য সমর্থন করেন কি?

  • মতামত নাই (5%, ৩ Votes)
  • হ্যা (31%, ১৭ Votes)
  • না (64%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৫৫