সিমাহীন দুর্ভোগে গফরগাঁওসহ ৫টি উপজেলার ২০লক্ষাধিক মানুষ
Friday, 6th May , 2016, 08:22 pm,BDST
Print Friendly, PDF & Email

সিমাহীন দুর্ভোগে গফরগাঁওসহ ৫টি উপজেলার ২০লক্ষাধিক মানুষ



আব্দুল মান্নান পল্টন,
লাস্টনিউজবিডি, ০৬ মে, ময়মনসিংহ : ঢাকা-ময়মনসিংহ দেওয়ানগঞ্জ রেলপথের গুরুত্বপূর্ণ রেলওয়েষ্টেশন গফরগাঁও। প্রাচীন এই জনপথের জনগুরুত্ব বৃটিশ সময় থেকে স্বীকৃত।

সাড়ে ৬ লক্ষ গফরগাঁওবাসী ছাড়াও পার্শ¦বর্তী কয়েকটি উপজেলার হাজার হাজার নানা পেশাজীবি মানুষ গফরগাঁও থেকে রেলপথে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় যাতায়াত করে থাকে।

গফরগাঁওয়ের পুর্বে নান্দাইল, পশ্চিমে ভালুকা, উত্তরে ত্রিশাল, দক্ষিনে হোসেনপুর, পাকুন্দিয়াসহ ৬টি উপজেলার অধিকাংশ এলাকার মানুষের জন্য গফরগাঁও থেকে রেলপথে যোগাযোগই একমাত্র সহজ মাধ্যম।

জনসংক্ষা বৃদ্বির পাশাপাশি দিন দিন জ্যামিতিক হারে বাড়ছে রেলপথের জনপ্রিয়তা। যদিও যাত্রীদের সেবা- মান দুটোই পড়ন্ত। প্রতি মাসে গফরগাঁও রেলওয়েষ্টেশন থেকে ট্রেনের টিকিট বিক্রি করে ১কোটি টাকারও অধিক রাজশ্ব উপার্জন করছে সরকার।

যা দেশের সকল রেলওয়েষ্টেশন থেকে উপার্জিত রাজস্ব’র তুলনায় অনেক বেশী। ঢাকার সাথে একমাত্র বিকল্প সংযোগ গফরগাঁও ভালুকা সড়কটিও দীর্ঘদিন যাবৎ বিপযস্ত বলেই কয়েকটি উপজেলার জনসাধারন রেলপথের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে।

এ রেলপথে চলাচল করে মাত্র ৫টি আন্তঃনগর ও ৫টি লোকাল ট্রেন।

লোকাল, আন্তনগর সবকটি ট্রেনই দেয়ানগঞ্জ ও ময়মনসিংহ থেকেই আসন সংক্ষার দ্বিগুন যাত্রী বহন করে গফরগাঁও রেলওয়ে ষ্টেশনে আসে। এতে প্রদিদিন চরম দুর্ভোগের শ্বীকার হচ্ছে গফরগাঁওয়ে অপেক্ষমান হাজার হাজার যাত্রী ।

গদাগদি ভিড়ে ট্রেনের ভিতরে উঠতে না পেরে অধিকাংশ যাত্রীরা ট্রেনের ছাঁদে,ইঞ্জিনে করে দরজা, জানালায় লটকি দিয়ে মরণ ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করতে বাধ্য হচ্ছেন।

উপরে, ভিতরে, দরজা, জানালায় ইঞ্জিনে, ট্রেনের চারদিকে মানুষ আর মানুষ। প্রতিদিনেই দেখা যায় এতদা অঞ্চলের অসহায় সুবিদা বঞ্চিত মানুষের মরণ ঝুঁকি নিয়ে চলাচলের এমন ভয়াবহ চিত্র।

বিরম্ভনা এখানেই শেষ নয়, ট্রেনের ভিতরে গদাগদি ভিড়ে ধমফেঁপে অসুস্থ হচ্ছে অসংখ্য যাত্রী। মান্দাত আমলের ট্রেনগুলোর ভিতরে বসার সিট নেই, লাইট নেই, ফ্যান নেই, বাথরুম নেই,খাবার ক্যান্টিনও নেই,সিমাহীন দূর্ভোগ ছাড়া যাত্রী সেবার কোন ব্যাবস্থাই নেই।

ধারণ ক্ষমতার ৫/৬ গুন অতিরিক্ত যাত্রী বহনের ফলে প্রতিনিয়ত জ্যামিতিক হারে বাড়ছে দুর্ঘটনা, প্রাণ হারাচ্ছে, অঙ্গহানি হচ্ছে অসংখ্য মানুষ। গুরুতর অসুস্থ রোগীদেরকে বিপযস্থ যোগাযোগের কারনে রাজধানী বা জেলা সদরে যথাসময়ে পাঠানোর সুযোগ নেই।

ফলে উন্নত চিকিৎসার সুযোগ বঞ্চিত অধিকাংশ রোগীরা বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুবরণ করছেন।

গফরগাঁও থেকে প্রতিদিন অন্তত ১০/১২ হাজার মানুষ রেলপথে রাজধানীতে যাতায়াত করে থাকে। সেই ১০/১২ হাজার যাত্রীর বিপরিতে ৫টি আন্তঃনগর ট্রেনে সর্বমোট আসন বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে মাত্র ১৭৯টি।

ট্রেনের আসন সংক্ষা বৃদ্ধি ও কোচসংযোজনসহ আরও ২টি ট্রেন চালু করতে দীর্ঘদিন যাবৎ দাবী জানিয়ে আসছেন স্থানীয় এমপি ফাহমি গোলন্দাজ বাবেলসহ এই অঞ্চলবাসী।

এই অঞ্চলের অর্র্থনীতির চাকা আরও জোরালো ও গতিশীল করতে রেলওয়ে ফলপ্রসু প্রদক্ষেপ জরুরী । যথাযথ যোগাযোগ ব্য্বাস্থা না থাকার ফলে কৃষি নির্ভরশীলএতদা অঞ্চলের কৃষকদের উৎপাদিত কষ্টের ফসল ন্যায়্য মুল্যে বিক্রি করতে পারছেননা তারা।

বিপর্যস্ত যাতায়ত ব্যবস্থার কারনে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে নিত্য প্রযোজনীয় মালামাল আমদানী করার ক্ষেত্রেও পরিবহন ভাড়া দ্বিগুনের চেয়ে বেশি দিতে হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

You must be logged in to post a comment Login

পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >
আর্কাইভ
মতামত
বাংলাদেশে সাংবাদিকতার সঙ্কট ও সম্ভাবনা: বর্তমান প্রেক্ষিত
।।মনজুরুল আহসান বুলবুল।। গণমাধ্যম বা সাংবাদিকত...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ সড়ক দাবীতে কুড়িগ্রামে মানববন্ধন
  • কুড়িগ্রামে পৈতৃক সম্পত্তি রক্ষায় কৃষক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন
  • স্বামী পরিত্যক্তা নারীকে ধর্ষণ: যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

[page_polls]