অবশেষে ভারমুক্ত হলেন মির্জা ফখরুল
Wednesday, 30th March , 2016, 11:43 am,BDST
Print Friendly, PDF & Email

অবশেষে ভারমুক্ত হলেন মির্জা ফখরুল



লাস্টনিউজবিডি, ৩০মার্চ, ঢাকা: অবশেষে ‘ভারমুক্ত’ হলেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তাকে মহাসচিব হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

দেশের অন্যতম প্রধান দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবের দায়িত্ব পাওয়ার পাঁচ বছর পর মির্জা ফখরুলকে মহাসচিবের দায়িত্ব দেয়া হলো।

এছাড়া বর্তমান যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এবং শিল্পপতি মিজানুর রহমান সিনহাকে কোষাধ্যক্ষ পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

গত ১৯ ম‍ার্চ অনুষ্ঠিত বিএনপির জাতীয় কাউন্সিলের পর কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটিতে এই প্রথম ৩ জনের দায়িত্ব চূড়ান্ত করলেন খালেদা জিয়।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নয়াপল্টনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী এ কথা জানান।

ওই কাউন্সিলে কাউন্সিলরা চেয়ারপারসন ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যানের পদে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে নির্বাচিত করে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের দায়িত্ব চেয়ারপাসনকে দেয়।

রিজভী আহমেদ বলেন, ১৯ মার্চ দলের ৬ষ্ঠ কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সে কাউন্সিলে কাউন্সিলরা বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে নেতৃত্বে নির্বাচনের ক্ষমতা দিয়েছেন। সেই ক্ষমতাবলে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এ তিনটি পদে এদেরকে নির্বাচিত করেছেন।

বিএনপির পঞ্চম কাউন্সিলের পর দলের মহাসচিবের দায়িত্বে ছিলেন প্রয়াত নেতা খন্দকার দেলোয়ার হোসেন। ২০১১ সালের ১৬ মার্চ তিনি মারা যান। এরপর দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব করা হয়। এরপর থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত তাকে ভারমুক্ত করা হয়নি।

ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবের দায়িত্ব নেওয়ার পর এ পর্যন্ত সাতবার জেল খেটেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বর্তমানে তার বিরুদ্ধে রয়েছে ৮৪ মামলা। ৩৫টি মামলায় তার বিরুদ্ধে চার্জশিটও গ্রহণ করা হয়েছে। কারাগারে যাওয়া-আসার মধ্যে থাকা এই নেতা রোগাক্রান্তও। চিকিৎসার জন্য প্রায়ই তাকে দেশের বাইরে যেতে হয়। এরপরও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছিলেন।

দলের দায়িত্বশীল দুজন নেতা জানান, মির্জা ফখরুল ইসলামের মহাসচিব পদ পাওয়া অনেকটাই অনুমিত ছিল। কারণ সংকটের সময়ে তিনি দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ কাজ করেছেন। তাছাড়া প্রতিকূল পরিবেশেও তিনি আপস করেননি। দলের ব্যাপারেও তিনি বেশ নিবেদিতপ্রাণ এবং হাইকমান্ডের প্রতি আনুগত। সে জন্য তিনি মহাসচিব হচ্ছেন, তা একপ্রকার নিশ্চিতই ছিল।

সূত্র জানায়, মহাসচিব পদ পাওয়ার দৌড়ে ফখরুল ইসলামের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বেশ কয়েকজন নেতা। তবে শেষ পর্যন্ত সবাই ছিটকে পড়েছেন। দলের আপদকালে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার পুরস্কার হিসেবে তাকে মহাসচিব করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন আলম, যুব বিষয়ক সম্পাদক যুব বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, সহ স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক এবি এম মোশাররফ হোসেন, জাসাসের সভাপতি আব্দুল মালেক প্রমুখ।

 

লাস্টনিউজবিডি, এমবি

Print Friendly, PDF & Email

You must be logged in to post a comment Login

পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >
আর্কাইভ
মতামত
বাংলাদেশে সাংবাদিকতার সঙ্কট ও সম্ভাবনা: বর্তমান প্রেক্ষিত
।।মনজুরুল আহসান বুলবুল।। গণমাধ্যম বা সাংবাদিকত...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ সড়ক দাবীতে কুড়িগ্রামে মানববন্ধন
  • কুড়িগ্রামে পৈতৃক সম্পত্তি রক্ষায় কৃষক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন
  • স্বামী পরিত্যক্তা নারীকে ধর্ষণ: যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

[page_polls]