শেষবার এফডিসিতে এসেছিলেন দিতি
Monday, 21st March , 2016, 12:42 pm,BDST
Print Friendly, PDF & Email

শেষবার এফডিসিতে এসেছিলেন দিতি



লাস্টনিউজবিডি, ২১ মার্চ, ঢাকা: মেয়ে লামিয়া চৌধুরীর অনেক ক্ষোভ চলচ্চিত্রের মানুষদের প্রতি। ক্ষোভের কারণ, তার মা দিতি অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে পড়ে থাকার দিনগুলোতে তেমন কেউ দেখা করতে আসেননি। তাই গতকাল রোববার রাতে যখন দিতিকে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য তার মরদেহ এফডিসিতে নেয়ার দাবি উঠল আপত্তি তুললেন লামিয়া।

শেষ পর্যন্ত চিত্রপরিচালক গুলজার, এস এ হক অলীক, চিত্রনায়ক রিয়াজ, ওমর সানী, চিত্রনায়িকা ববিতা, মৌসুমী ও অারো কয়েকজনের অনুরোধে লামিয়া রাজি হন।

অবশেষে নির্ধারিত সময় সোমবার সকাল ১০টায় শেষবারের মতো এফডিসিতে এসেছিলেন চিত্রনায়িকা দিতি। প্রিয় নায়িকাকে দেখতে সোমবার সকালে এফডিসি প্রাঙণে ছুটে এসেছিলেন তার চলচ্চিত্র সহকর্মী, সাংবাদিক ও ভক্তরা। এসেছিলেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, মুশফিকুর রহমান গুলজার, নায়ক আলমগীর, ওমর সানী, নায়িকা চম্পা, মিজু আহমেদ, নায়ক রুবেল, এস এ হক অলিক`সহ অনেকে।

তারা খুব কাছের, খুব প্রিয়, খুব পছন্দের দিতিকে অশ্রুজলে ভেজা ফুলেল শুভেচ্ছায় বিদায় জানালেন। করলেন কতো শতো স্মৃতিচারণ। সেইসব শুনে শুনে এফডিসির জহির রায়হান কালার ল্যাবের চত্বরটি হয়ে উঠেছিলো দিতিময়।

দিতিকে নিয়ে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, ‘দিতি একজন আপাদমস্তক অভিনেত্রী ছিলেন। তার চেয়েও বড় কথা, তিনি খুব ভালো একজন মানুষ ছিলেন, একজন দেশপ্রেমিক ছিলেন। আমাদের এখানে অনেক অভিনয়শিল্পী আছেন, কিন্তু দিতির মতো দেশ সচেতন অভিনয়শিল্পী খুব বেশি নেই। আমি তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।’

দিতিকে নিয়ে চম্পা বলেন, ‘ওর সঙ্গে কতো স্মৃতি। কী করে ভুলব এসব! দিতি আমার কাছে বোনের মত ছিলো। একসাথে অনেকটা পথ পাড়ি দিয়েছি আমরা। কেন একটু আগে আগেই চলে যেতে হলো? আর তো দেখা হবে না, কথা হবে না। শুধু দোয়া করি, ভালো থাক দিতি। ওর সন্তানদের জন্যও সমবেদনা জানাচ্ছি। আমরা লামিয়া ও দীপ্তর পরিবার হয়েই ওদের পাশে আছি।’

দিতির স্মৃতিচারণ করে চিত্রনায়ক আলমগীর বলেন, ‘আমি সত্যি সৌভাগ্যবান যে আমার বিপরীতে কাজ করেই দিতি প্রথম এবং একমাত্র জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয় করেছিলো। ওকে আমি নিজের মেয়ের মতোই ভালোবাসতাম। খুব ভালো একটা মেয়ে ছিলো। দায়িত্ববান মা-ও। একা একা কী চমৎকার সে তার ছেলেমেয়ে দুজনকেই মানুষ করে তুলেছে।’

চোখের জল মুছে আলমগীর আরো বলেন, ‘দিতি আর আসবে না। গুণী অভিনেত্রী দিতি, ভালো মানুষ দিতি আমরা পাবোও না। বড় অবেলাতেই চিরতরের পথে যাত্রা হলো তার। সে যাত্রা শুভ হোক। আল্লাহ দিতিকে বেহস্তে দান করুন।’

পরিচালক সমিতির মহাসচিব মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, ‘দিতি আমাদের একজনই। তিনি ছিলেন, বেঁচে রইকের চিরদিন তার হাসিতে, অভিনয়ে, ভালো মানুষিতে। আমরা তাকে হারিয়ে যেতে দেব না।’

তিনি আরো বলেন, ‘দিতি খুব বড় মনের মানুষ ছিলেন। সুযোগ পেলেই মানুষের পাশে দাঁড়াতেন। অনেককেই তিনি সাহায্য করেছেন। তবু যদি কারো কাছ থেকে ধার-দেনা করে থাকেন তবে আপনারা অভিনেতা আলমগীর সাহেবের সঙ্গে কথা বলবেন। তিনি আপনাদের পাওনা পরিশোধ করে দিবে। আর যদি কারো কাছে দিতির পাওনা থাকে তবে নিজ দায়িত্বে সেগুলো শোধ করে দিবেন।’

দিতির অকাল প্রয়াণে বাকরুদ্ধ ওমর সানী। তিনি বললেন, ‘এটা খুবই বেদনার, দিতিকে বিদায় জানাতে আসা। দুনিয়ার সব ফুল দিয়েও তাকে শুভেচ্ছা জানানোর শেষ হবে না। সে আমাদের মাঝে চিরকাল বেঁচে থাকবে নন্দিত অভিনেত্রী হয়ে।’

সবার উদ্দশ্যে দিতির মেয়ে লামিয়া চৌধুরী বলেন, ‘আমার মা নিজের পরিবারের চাইতে বেশি ভালবাসতেন চলচ্চিত্র এবং অভিনয়। সবসময় তিনি কাজে ডুবে থাকতেন। নিজের প্রতিও খেয়াল করতেন না। ভেতরে ভেতরে এতবড় একটা অসুখ নিয়ে তিনি এমনভাবে কাজ করে গেছেন নিজেও বুঝতে পারেননি তিনি ক্রমেই ফুরিয়ে যাচ্ছেন। এই কাজ পাগল, অভিনয় পাগল দিতিকে আপনারা মনে রাখবেন। নিজের চাইতেও আপন ভাবতেন চলচ্চিত্রের মানুষদের। আপনারা সবাই আমার মায়ের জন্য দোয়া করবেন।’

সবকিছুরই শেষ আছে। দিতিকে চলে যেতে হবে অনেক দূরে। তার শুভ যাত্রা কামনায় ১০টা ১৫ মিনিটে অনুষ্ঠিত হয় দ্বিতীয় জানাজা।

জানাজা শেষে দিতির মরদেহ নিয়ে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্স রওনা দেয় নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের দপ্তপাড়া গ্রামের পথে; যেখানে দিতির জন্ম। সেখানেই শেষ শয্যায় সমাহিত হবেন তিনি। তার আগে জোহর নামাজের পর অনুষ্ঠিত হবে দিতির তৃতীয় জানাজা।

দিতিকে নিয়ে চলে গেল অ্যাম্বুলেন্স। স্মৃতির হাজার কবিতা বুকে নিয়ে পড়ে রইল দিতির প্রিয় আঙ্গিনা এফডিসি। নির্বাক হয়ে পড়ে রইল তার প্রিয় মানুষেরা। চম্পা, ববিতা, আলমগীর, দিলারা, খালেদা আক্তার কল্পনা, মিজু আহমেদ, আহমেদ শরীফ, রুবেল, ওমর সানীরা দিতির চলে যাওয়ার দিকে তাকিয়ে চোখ মুছতে মুছতে বুঝি বলছিলেন- বিদায় দিতি। আর কোনোদিন দেখা হবে না, কথা হবে না। অদেখা ভুবনে ভালো থেকো তুমি।

লাস্টনিউজবিডি,এমবি

Print Friendly, PDF & Email

You must be logged in to post a comment Login

পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

জার্মানির বার্লিন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় দেখা গেছে, নাক দিয়েও মস্তিস্কে করোনা হানা দেয়। আপনি কি মনে করেন মস্তিস্কে করোনার আক্রমণ রক্ষার্থে মাস্ক ই যথেষ্ট?

View Results

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
যুবলীগের নতুন নেতৃত্বঃ পরশের পরশ ছোঁয়ায় জেগে উঠুক কোটি তরুণ
।।মানিক লাল ঘোষ।।"আমার চেষ্টা থাকবে যুব সমাজ যেনো...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য উচ্ছেদের হুমকি প্রদানকারীদের বিচারের দাবি
  • দিবালোকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের জমি দখলের অভিযোগ
  • রেলের উচ্ছেদ হওয়া ১৫০ পরিবারের পূণর্বাসন বন্দোবস্ত

জার্মানির বার্লিন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় দেখা গেছে, নাক দিয়েও মস্তিস্কে করোনা হানা দেয়। আপনি কি মনে করেন মস্তিস্কে করোনার আক্রমণ রক্ষার্থে মাস্ক ই যথেষ্ট?

  • হ্যা (100%, ২ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (0%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: ডিসেম্বর ২, ২০২০ @ ৩:১৯ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

মডার্নার, ফাইজারের করোনা ভাইরাসের টিকার মধ্যে মডার্নার টিকার উপর কি আপনার আস্থা বেশি ?

  • মতামত নাই (100%, ১ Votes)
  • হ্যা (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: ডিসেম্বর ২, ২০২০ @ ৯:১৯ পূর্বাহ্ন
End Date: No Expiry

মার্কিন টিকা প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান মডার্নার দাবি করেছেন অত্যধিক ঝুঁকিপূর্ণ রোগীর ওপর এ টিকা ১০০ শতাংশ কাজ করেছে। আপনি কি শতভাগ ফলপ্রসু মনে করেন?

  • হ্যা (100%, ১ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (0%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: ডিসেম্বর ১, ২০২০ @ ১২:৫১ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

ফাইজার, অক্সফোর্ড, রাশিয়ান, চায়নার ভ্যাকসিনগুলোকে আপনি কি করোনা প্রতিরোধক কার্যকর টিকা বলে মনে করেন?

  • না (67%, ২ Votes)
  • মতামত নাই (33%, ১ Votes)
  • হ্যা (0%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: নভেম্বর ২৯, ২০২০ @ ৫:২৮ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

ফাইজার, অক্সফোর্ড, রাশিয়ান ইন, চায়না ভ্যাকসিনগুলোকে আপনি কি করোনা প্রতিরোধক কার্যকর টিকা বলে মনে করেন?

  • হ্যা (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (100%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: নভেম্বর ২৯, ২০২০ @ ৪:৫৭ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

 Page ১ of ২  ১  ২  »