চাচাতো ভাই-বোনের রঙ্গলীলা
Sunday, 13th March , 2016, 09:11 pm,BDST
Print Friendly, PDF & Email

চাচাতো ভাই-বোনের রঙ্গলীলা



আব্দুর রহমান(জসিম),
লাস্টনিউজবিডি, ১৩ মার্চ, চুয়াডাঙ্গা : দামুড়হুদা উপজেলার হাউলী ইউনিয়নের পুরাতন বাস্তপুর গ্রামের চাচাতো ভাই-বোনের রঙ্গলীলা দেহ ভোগের পর বিয়ে করতে অসম্মতি জানাচ্ছে ভাই ইব্রাহিম বাবু (২৫)।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে পাশা-পাশি একই বাড়ী থাকত চাচাতো ভাই-বোন সুমি ও ইব্রাহিম বাবু। সুমি পুরাতন বাস্তপুরের দাখিল মাদ্রাসা ৯ম শ্রেনী ছাত্রী পিতা মোঃ আব্দুস সালাম দিনমুজর। অন্য দিকে শহিদুল ইসলাম ওরফে কালুর ছেলে কীটনাশক বিক্রেতা ও প্রাইভেট শিক্ষক ইব্রাহিম বাবু।

এখান থেকে শুরু হয় তাদের পারস্পরিক প্রেম নিবেদন। এক পর্যায়ে বেশ কবার বিয়ের পলোভন দেখিয়ে ফুসলিয়ে সুমির দেহ ভোগ করে ইব্রাহিম বাবু। দীর্ঘদিন এহেন সম্পর্ক হলেও বাবু এখন এ সম্পর্ক করছে অস্বীকার।

মেয়ের বাবা গরীব হওয়ায় ন্যার্য বিচার পাওয়ার আশায় সমাজ প্রতিদের দারস্থে ঘুরছেন। এ নিয়ে সালিশ বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও রহস্যজনক কারণে গ্রামের মাতব্বারা বৈঠকে একত্রিত হতে পারেন নি এখন। তাহলে এখন মেয়ের পিতা মাতার করণীয় কি। কী ভাবে দেবে মেয়ের বিয়ে ?

সুমির বক্তব্য :  সুমি আমাদের এ প্রতিবেদককে বলেন বাবু আমার চাচাতো ভাই। সে আমাকে অনেক দিন থেকে পিছনে লাগে প্রেম করার জন্য বলে কিন্তু আমি রাজি ছিলাম না। আমি বলতাম তোর সাথে আমার এ সম্পর্ক হয় না। তুই আমার ভাই কিন্তু সে বলত তাই কি আমি তোকে ভালবাসি, তোকে বিয়ে করব।

এ সব কথা বলার পর আমি ভাবলাম কতদিন থেকে ও আমার পিছনে ঘোরে তাহলে হয়ত সত্যিই আমাকে ভালবাসে। আমি বাবুর কাছে প্রাইভেট পরতাম, আমাদের ভালবাসা তখন চলছিল। একদিন বাবু আমাকে প্রাইভেট পড়ার সময় স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিলে আমি বাবুকে মানা করি। দেখ বাবু এসব কি করছিস তখন ও আমাকে বলল সুমি আমি তোকে ভালবাসি ও খড়াব ণড়ঁ আর তোকেতো আমি বিয়ে করবই এভাবে প্রথমবারের মত সে আমাকে তার সাথে দৈহিক সম্পর্ক আবদ্ধ করে।

পূনরায় বাবুদের বাড়ীর রান্নাঘরে এভাবে বেশ কয়েকবার সে আমার সাথে দৈহিক সম্পর্ক করে। কিন্তু আমি নাই বুঝতে পারি নি। তাই বলে বাবুর তো বোঝা উচিত ছিল। আর সে এখন বলছে, সব মিথ্যা সব ভুল। কিন্তু আমার যা সর্বনাশ হওয়ার তাতো হয়েই গেছে। আমি চাই বাবু আমাকে বিয়ে করে সামাজিক স্বীকৃতি দিক।

সুমির পিতা মাতার বক্তব্যঃ সুমির বয়স্ক পিতা গুরতর অসুস্থ অবস্থায় বিছানায় পরে আছেন। একারণেই সুমির পিতার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি। তবে সুমি মায়ের কাছে ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি প্রাথমিক ভাবে তাদের মেয়ের ভবিষ্যতের কথা ভেবে মুখ খুলতে রাজি না হলেও শেষ পর্যন্ত সঠিক বিচারের জন্য সমাজ প্রতিদের দারস্থ হয়েছেন।

এছাড়াও তিনি বলেন বাপ বাবু আর সুমি চাচাতো ভাই বোন কিভাবে কি হয়েছে আমরা কেউই জানতে পারিনি। সুমি বাবুদের পাশের বাড়ী ফজলুল হক মহনের বাড়িতে কাজ করত হটাৎ করেই ২০/২৫ দিন ধরে ঠিক মত খাচ্ছে না। কারও সাথে কথাও বলছে না। সুমির জন্য স্কুলের ১৬টা বই, আরবি বই, নামাজ শিক্ষা বই এনেছি সেগুলোও পরছে না।

সুমি একবার বলছে বিশ খাব, আবার গলাই দড়ি দিতে যাচ্ছে, ব্লেট দিয়ে নিজের হাত কেটেছে। পরে আমি অনেক বার সুমির কাছে জানতে চাইলে সে আমাকে পুরো ঘটনা খুলে বলে।

তারপর আমি গ্রামের মেম্বার, মাতব্বারদের জানাই। গত কাল সালিশ বৈঠক বসার কথা ছিল কিন্তু তারা বসে নি এ গরিবের জন্য গ্রামের লোকজন যদি বিচার করে দিত তাহলে আমাদের মত অসহায় গরিব পরিবারের ভাল হত। এখন জেনে শুনে আমার সুমিকে কে বিয়ে করবে ? মেয়েটা না খেয়ে খেয়ে ঘেনা হয়ে গেছে। আমাদের বাবু আমার সুমির এত বড় সর্বনাশ করলো। তাই আমার গ্রামবাসির কাছে একটাই দাবি বাবু সুমিকে বিয়ে করুক।

ছেলে ও পিতার বক্তব্যঃ ছেলে ইব্রাহিম বাবু ও পিতাঃ মোঃ শহিদুল ইসলাম ওরফে কালুর বক্তব্য নিতে গেলে দেখা যায় ছেলে তার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বসে আছে সাংবাদিক পরিচয় পেলে বাড়ি থেকে চেয়ার এনে বসতে দিলেন তার পর তার পিতা মোঃ শহিদুল ইসলাম ওরফে কালু  সাংবাদিক প্রতিবেদকের সামনে এসে সালাম বিনিময় করলেন সালাম বিনিময় শেষে পুত্র ইব্রাহিম কে বাড়ির ভিতরে ডাক দিলেন।

বাড়ীর ভেতরে গিয়ে পিতা ও পুত্র ভোঁদৌর দিয়ে পালিয়ে যায়। ততক্ষনে সাংবাদিক প্রতিবেদক শত শত জনগণের মাঝে ইব্রাহিমের অপেক্ষায় দোকানে বসে আছে।

প্রায় ৩০ মিনিট বসে থাকার পর ইব্রাহিমের মেজ ভাই সবুজ আলী এ সাংবাদিক প্রতিবেদকের সামনে আসেন। সবুজকে ইব্রাহিমকে ডেকে দেওয়ার কথা বললে সবুজ চড়াও হয়ে বলেন কি হবে, কি দরকার, আমার সাথে বলেন। তখন সাংবাদিক প্রতিবেদক বলেন আপনার ভায়ের নামে একটা তথ্য পেলাম এ বিষয় একটু কথা বলতাম। কথা বলার সময় সাংবাদিক প্রতিবেদকের ক্যামেরা চালু ছিল এবং ক্যামেরায় ছবি সহ রেকর্ড চলছিল।

বিষয়টি সবুজ আচ করলে  হটাৎ করেই বলে আমার ছবি তুলছেন কেন এ বলে সাংবাদিক প্রতিবেদকের ক্যামেরাটি হাত থেকে কেরে নেয়ার জন্য ধস্তা ধস্তি এক পর্যায়ে সাধারণ জনগণ সবুজের উপর চরাও হলে সবুজ কিছুটা শান্ত হন। তার পর পর সাংবাদিক প্রতিবেদক ইব্রাহিমের বাড়ী ত্যাগ করেন।

এলাকাবাসির বক্তব্যঃ উপজেলার পুরাতন বাস্তপুর গ্রাম বাসির মুখে বিষয়টি এখন “ টক অফ দ্যা ভিলেজ” এলাকাবাসির বেশির ভাগই বলেছেন অভিযুক্ত ইব্রাহিম বাবুর অবশ্যই দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তি হওয়া দরকার কারণ একজন নিম্ন পরিবারের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রীর সুমি, তার বিষয়টা আমাদের দেখা উচিত কিন্তু এবিষয়টা নিয়ে আমাদের গ্রামের মাতব্বারদের সালিশ বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও তা কারণ বশত থেমে গেছে। আর কেনই বা সালিশ বৈঠক বসে নি তা সঠিক ভাবে জানা যায়নি। বিষয়টি নিয়ে গ্রাম বাসির মনে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার হাওয়া বইছে।

এছাড়াও ঘটনাস্থলে দেখা যায় গ্রামের শতশত মানুষ মাতব্বারদের বিচারের রায় শোনার অপেক্ষায় গতকাল রাত ১০টা পর্যন্ত অপেক্ষামান ছিল।

Print Friendly, PDF & Email

You must be logged in to post a comment Login

পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

আপনি কি মনে করেন বাসে আগুন দিয়ে কি সরকার পরিবর্তন করা যাবে ?

View Results

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
যুবলীগের নতুন নেতৃত্বঃ পরশের পরশ ছোঁয়ায় জেগে উঠুক কোটি তরুণ
।।মানিক লাল ঘোষ।।"আমার চেষ্টা থাকবে যুব সমাজ যেনো...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • রুহিয়া এলএসডিকে জমি দান করলেন এমপি রমেশ চন্দ্র
  • জাহাঙ্গীর হত্যা মামলার প্রধান আসামী গ্রেফতার
  • বোরকা কিনে দেওয়ার কথা বলে কলেজছাত্রীকে হোটেলে নিয়ে ধর্ষণ

আপনি কি মনে করেন বাসে আগুন দিয়ে কি সরকার পরিবর্তন করা যাবে ?

  • না (67%, ১৪ Votes)
  • হ্যা (24%, ৫ Votes)
  • মতামত নাই (9%, ২ Votes)

Total Voters: ২১

Start Date: নভেম্বর ১৩, ২০২০ @ ২:৫৪ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

How Is My Site?

  • Good (0%, ০ Votes)
  • Excellent (0%, ০ Votes)
  • Bad (0%, ০ Votes)
  • Can Be Improved (0%, ০ Votes)
  • No Comments (100%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: নভেম্বর ১৩, ২০২০ @ ২:৫৪ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry