উন্নয়ন গিলে খাচ্ছে দুর্নীতি
Monday, 12th June , 2017, 12:22 pm,BDST
Print Friendly, PDF & Email

উন্নয়ন গিলে খাচ্ছে দুর্নীতি



লাস্টনিউজবিডি, ১২ জুন, নিউজ ডেস্ক:  নির্বাচনী মহাসড়কে আছে দেশের রাজনৈতিক দলগুলো। যে যার মতো করে কৌশল ঠিক করছে নির্বাচনকে সামনে রেখে। নানামূখী এসব কৌশলের মধ্যে দৃশ্যমান মূলত দুইটি। এর একটি হচ্ছে ক্ষমতায় গেলে তারা জনস্বার্থে কী করবে বা আগে কী করেছে এসব বিষয় দেশবাসী তথা ভোটারদের জানানো। আর অপরটি হচ্ছে প্রতিপক্ষের নেতিবাচক দিকগুলো তুলে ধরা ও নিজেদের বিরুদ্ধে আসা সমালোচনার জবাব প্রস্তুত রাখা।

দ্বিতীয় বিষয়ে বেশি সতর্ক থাকতে হয় নির্বাচন পূর্ববর্তী সরকারে থাকা রাজনৈতিক দল বা প্রধান দলকে। অর্থ্যাৎ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এসব বিষয়ে প্রস্তুত হতে হচ্ছে আওয়ামী লীগকে।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রধান জবাবদিহিতার বিষয় হতে পারতো গত সংসদ নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণ না করার বিষয়টি। তবে উন্নয়ণমূলক নানা কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে দলটি তা অনেকখানিই ঘুছাতে পেরেছে বলে মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। এর কারণেই আওয়ামী লীগ বেশ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে ‘উন্নয়নের গণতন্ত্র’ শ্লোগানে আওয়াজ তুলছে।

তারা মনে করছেন, খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্ণতা অর্জন, রাজধানী ঢাকার যানজট নিরসনে একের পর এক ফ্লাইওভার নির্মাণ, মোট্রোরেলের কাজ এগিয়ে যাওয়া, ঢাকা-চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন মহাসড়ক চার লেনে উন্নীত হতে থাকা, বিদ্যুৎ উৎপাদনে একের পর এক প্রকল্প হাতে নেওয়া ও সাধারণে কাছে স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দিকে কমিউনিটি ক্লিনিকসহ নানা পদক্ষেপ নেয়াসহ বিভিন্নমূখী উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে পরিপ্রেক্ষিতে দলটি এতটা আত্মবিশ্বাসী।

তবে এসব কিছু আত্মবিশ্বাসী করলেও নিশ্চিন্ত করছে না আওয়ামী লীগকে। কারণ উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড যত হচ্ছে দুর্নীতিও যে সে হারে বাড়ছে। উন্নয়নকে যেন গিলে খাচ্ছে দুর্নীতি।

কয়েকটি উদাহরণ দিয়ে বিশ্লেষকরা বলছেন, রাজধানীর মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের নির্মাণ ব্যয় বাড়তে বাড়তে যে অংকে গিয়ে ঠেকেছে, তা কোনোভাবেই স্বাভাবিক বিষয় নয়।

অভিযোগ আছে, আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন জোটের সঙ্গে সম্পর্কিত ব্যবসায়ী-ঠিকাদারদের নানা মহলকে খুশী করিয়ে ফ্লাইওভারটির মূল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এই অবিশ্বাস্য বরাদ্দ বাগিয়ে নিয়েছে। প্রকল্প চালু হওয়ার পর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টানা অন্তত দুই বছর কয়েক গুণ বেশি হারে টোল আদায় করেছে। চুক্তিকে এভাবে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখানোর পরও সরকার একপ্রকার চুপচাপ।

খরচ বেড়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ককে চার লেনে উন্নীতকরণ ব্যায়ও হয়েছে প্রাক্কলিক ব্যায়ের চারগুণের মতো। কেবল মহাসড়ক নয়, ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথকে ডাবল ট্র্যাক করার প্রকল্পের ব্যয়ও কয়েক গুণ বাড়ানো হয়েছে।

সবমিলে বড়-ছোট প্রায় সব প্রকল্পেই ব্যায় বাড়িয়ে কয়েকগুণ করা হচ্ছে। আর এর প্রধান কারণ হিসেবে নির্দ্দিষ্ট সময় প্রকল্প শেষ না হওয়াকেই দেখানো হয়। এমন পরিস্থিতিতে সংশ্লিষ্টরা প্রশ্ন তুলছেন, সময় বাড়ার কারণে বরাদ্দ বাড়ে, নাকি বরাদ্দ বাড়াতে সময়ক্ষেপণ করা হয়?

এসব দুর্নীতির সাথে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার। অন্তত সংসদ সদস্য পদে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের বিষয়ে বেশ শক্ত অবস্থানে আছে আওয়ামী লীগ। দলীয় প্রধানের কাছে থাকা তাদের আমলনামা নির্দ্দিষ্ট সময় পর পর পর্যালোচনা করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

এদিকে দুর্নীতি দমন কমিশনের জন্য বাজেট বাড়ানোর প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১০১ কোটি ৭১ লাখ টাকা। বিদায়ী ২০১৬-১৭ অর্থবছরে দুদকের জন্য বরাদ্দ ৮৬ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। চলতি সংসদ অধিবেশনে বাজেট বক্তৃতায় এই প্রস্তাব দেন অর্থমন্ত্রী।

বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থা উন্নয়নের জন্য একটি সুশাসনভিত্তিক প্রশাসনিক কাঠামো তৈরি করা আমাদের সরকারের অন্যতম অঙ্গীকার। এরই অংশ হিসেবে দুদককে আরও শক্তিশালী ও কার্যকর করার লক্ষ্যে ‘দুর্নীতি দমন কমিশন আইন-২০১৬’ সংশোধন করা হয়েছে। দুর্নীতির অভিযোগগুলো সরাসরি গ্রহণের উদ্যোগ হিসেবে দুদকে হটলাইন চালু করা হয়েছে।

বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশলের নিবারণমূলক প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে দুর্নীতি প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে দুদক ‘গণশুনানি’ পরিচালনা করছে। ভবিষ্যতে এ কার্যক্রমকে আরও বিস্তৃত করার পরিকল্পনা রয়েছে। এছাড়া দেশব্যাপী দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলনকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপদানের লক্ষ্যে সব জেলায় ১৩ সদস্য বিশিষ্ট জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি এবং উপজেলায় ৯ সদস্য বিশিষ্ট উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি কার্যক্রম পরিচালনা করবে। দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতি প্রতিরোধে সততা সংঘ প্রতিষ্ঠা করা হবে বলেও জানান অর্থমন্ত্রী।

লাস্টনিউজবিডি/এমবি

Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed

পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

জার্মানির বার্লিন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় দেখা গেছে, নাক দিয়েও মস্তিস্কে করোনা হানা দেয়। আপনি কি মনে করেন মস্তিস্কে করোনার আক্রমণ রক্ষার্থে মাস্ক ই যথেষ্ট?

View Results

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
যুবলীগের নতুন নেতৃত্বঃ পরশের পরশ ছোঁয়ায় জেগে উঠুক কোটি তরুণ
।।মানিক লাল ঘোষ।।"আমার চেষ্টা থাকবে যুব সমাজ যেনো...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য উচ্ছেদের হুমকি প্রদানকারীদের বিচারের দাবি
  • দিবালোকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের জমি দখলের অভিযোগ
  • রেলের উচ্ছেদ হওয়া ১৫০ পরিবারের পূণর্বাসন বন্দোবস্ত

জার্মানির বার্লিন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় দেখা গেছে, নাক দিয়েও মস্তিস্কে করোনা হানা দেয়। আপনি কি মনে করেন মস্তিস্কে করোনার আক্রমণ রক্ষার্থে মাস্ক ই যথেষ্ট?

  • হ্যা (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (100%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: ডিসেম্বর ২, ২০২০ @ ৩:১৯ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

মডার্নার, ফাইজারের করোনা ভাইরাসের টিকার মধ্যে মডার্নার টিকার উপর কি আপনার আস্থা বেশি ?

  • মতামত নাই (100%, ১ Votes)
  • হ্যা (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: ডিসেম্বর ২, ২০২০ @ ৯:১৯ পূর্বাহ্ন
End Date: No Expiry

মার্কিন টিকা প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান মডার্নার দাবি করেছেন অত্যধিক ঝুঁকিপূর্ণ রোগীর ওপর এ টিকা ১০০ শতাংশ কাজ করেছে। আপনি কি শতভাগ ফলপ্রসু মনে করেন?

  • হ্যা (100%, ১ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (0%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: ডিসেম্বর ১, ২০২০ @ ১২:৫১ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

ফাইজার, অক্সফোর্ড, রাশিয়ান, চায়নার ভ্যাকসিনগুলোকে আপনি কি করোনা প্রতিরোধক কার্যকর টিকা বলে মনে করেন?

  • না (67%, ২ Votes)
  • মতামত নাই (33%, ১ Votes)
  • হ্যা (0%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: নভেম্বর ২৯, ২০২০ @ ৫:২৮ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

ফাইজার, অক্সফোর্ড, রাশিয়ান ইন, চায়না ভ্যাকসিনগুলোকে আপনি কি করোনা প্রতিরোধক কার্যকর টিকা বলে মনে করেন?

  • হ্যা (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (100%, ০ Votes)

Total Voters:

Start Date: নভেম্বর ২৯, ২০২০ @ ৪:৫৭ অপরাহ্ন
End Date: No Expiry

 Page ১ of ২  ১  ২  »