ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে অনুষ্ঠিত হলো ইস্টার্ন ইন্ডিয়া ট্রেড সামিট-২০১৯
Wednesday, 17th July , 2019, 10:03 pm,BDST
Print Friendly, PDF & Email

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে অনুষ্ঠিত হলো ইস্টার্ন ইন্ডিয়া ট্রেড সামিট-২০১৯



লাস্টনিউজবিডি, ১৭জুলাই:ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে আগামী ১৫-১৬ জুলাই অনুষ্ঠিত হলো ইস্টার্ন ইন্ডিয়া ট্রেড সামিট-২০১৯।

কোলকাতায় অনুষ্ঠিত দুইদিনব্যাপি সিডব্লিউবিটিএ ইস্টার্ন ইন্ডিয়া ট্রেড সামিট-২০১৯ এর মাধ্যমে ভারতের রাজ্যগুলোতে বাংলাদেশি পণ্যের রপ্তানি আরও বাড়বে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) এবং ভারত -বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (আইবিসিসিআই)। এই সম্মেলনে বাংলাদেশ থেকে সবচেয়ে বেশী শতাধিক ব্যবসায়ী অংশ নেয়।

কলকাতার হোটেল ওবেরয় ও দ্য পার্কে সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয় । সম্মেলনটি আয়োজন করে কনফেডারেশন অব ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রেড অ্যাসোসিয়েশন (সিডাব্লিউবিটিএ)। এতে ভারত ছাড়াও বাংলাদেশ, ভুটান, নেপাল, থাইল্যান্ডের বিপুলসংখ্যক শীর্ষ ব্যবসায়ী নেতারা অংশ নেয়। এসোসিয়েশনের (সি ডব্লিউবিটিআর-র) সভাপতি সুশীল পোদ্দার এতে সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশের উইমেন্স চেম্বার এন্ড কমাসের সভাপতি সেলিমা আহমাদ এমপি, Leading Member of Nepal Chamber of Commerce Rajesh Kaji Shreshtha,Pawan Jajodia, Working President, CWBTA, N Kapadia, Chairman of the Summit, Rajesh Bhatia, Hon. Gen. Secretary of CWBTA ।

গ্রান্ড হোটেলে ১৫ জুলাইয়ে অনুষ্ঠিত এ সম্মেলনের উদ্বোধন কালে এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম,ভারত বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্সের সভাপতি এফবিসিসিআইর সাবেক সভাপতি নিটল-নিলয় গুপের চেয়ারম্যান কর বাহাদুর আব্দুল মাতলুব আহমাদ, কনফেডারেশন অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রেড এসোসিয়েশনের (সি ডব্লিউবিটিআর-র) সভাপতি সুশীল পোদ্দার। এতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের অর্থ প্রতি মন্ত্রী ও শিল্প-বানিজ্যমন্ত্রী ড. অমিত মিত্রা উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও অসুস্থতার জন্য তিনি আসতে পারেননি । তবে তার কার্যালয়ে বসে ২৫ মিনিট টেলিফোনে সম্মেলনে আগত ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন।

সম্মেলন উদ্বোধন শেষে উপস্থাপিত প্রবন্ধে এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম উল্লেখ্য করেন, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ভারতের সাথে বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ছিল ৯ দশমিক ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। সিডব্লিউবিটিএর যেহেতু ১০ লাখেরও বেশি ব্যবসায়ী সদস্য রয়েছেন। তাই এ সম্মেলনের মাধ্যমে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে এবং সার্ক, বিবিআাইএন এবং বিমসটেক সদস্যভূক্ত দেশগুলোতে বাংলাদেশি পণ্যের রপ্তানি বৃদ্ধির নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে।

ভারতকে বাংলাদেশের অন্যতম কৌশলগত উন্নয়ন অংশীদার এবং বৃহৎ বিনিয়োগকারী দেশ হিসেবে উল্লেখ করে শেখ ফাহিম বলেন, বাংলাদেশের বিদ্যুত, রেল যোগাযোগ, সড়ক ও পরিবহণ, বস্ত্র শিল্প, ব্যাংক এবং টেলিযোগাযোগ খাতে ভারতের উল্লেখযোগ্য বিনিয়োগ রয়েছে।

এফবিসিসিআই সভাপতি আরও বলেন, বাংলাদেশ যেহেতু উন্নততর অর্থনৈতিক কাঠামোতে উন্নীত হচ্ছে তাই নিম্মোক্ত সম্ভাবনাময় খাতগুলোতে যৌথভাবে কাজ করার সুযোগ রয়েছে: হালকা, মাঝারি ও ভারি শিল্পের জন্য যৌথ উদ্যোগে উচ্চ প্রযুক্তির গবেষণা, উন্নয়ন ও উদ্ভাবন; তৃতীয় শিল্প বিপ্লব থেকে ৪র্থ শিল্প বিপ্লবে উন্নীতকরণের এ লগ্নে প্রয়োজনীয় জ্ঞান বিনিময়; বাণিজ্য, বিনিয়োগ এবং রাজস্ব কাঠামো ও নীতি পরিকল্পনার বিষয়ে প্রয়োজনীয় জ্ঞান বিনিময়; তথ্য প্রযুক্তি, ন্যানো টেকনোলজি, রোবোটিক্স, সাইবার নিরাপত্তা, কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা ইত্যাদি খাতে সহযোগিতা।

এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনা সহজীকরণে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সাথে এফবিসিসিআই নিবিড়ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এ বছরের শেষে এবং ২০২০ সাল নাগাদ এক্ষেত্রে লক্ষণীয় সাফল্য চোখে পড়বে বলে তিনি উল্লেখ করেন। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ সরকারের দেয়া আকর্ষণীয় বিনিয়োগ সুবিধা গ্রহণ করে ভারতীয় বিনিয়োগকারীদেরকে ‘বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে’এবং অন্যান্য খাতে বিনিয়োগের আহ্বান জানান

ভারত বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্সের সভাপতি এফবিসিসিআইর সাবেক সভাপতি নিটল-নিলয় গুপের চেয়ারম্যান কর বাহাদুর আব্দুল মাতলুব আহমাদ বলেন, ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সম্পর্কে মধুর করতে রাজনৈতিক বিষয় ছাড়াও ব্যাবসায়ী ক্ষেত্রেও ভূমিকা রাখতে হবে। তিনি বলেন,আমি মনে করি দুই দেশের মধ্যে যে সম্পর্ক আছে তাকে আরও মজবুত করতে বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরো জরুরি।

আবদুল মাতলুব আহমাদ জানান,ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে ব্যাবসা ১১% বৃদ্ধি পেয়েছে যা এখন ৭.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে এসে দাঁড়িয়েছে।

কনফেডারেশন অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রেড এসোসিয়েশনের (সি ডব্লিউবিটিআর-র) সভাপতি সুশীল পোদ্দার বলেন,পশ্চিমবঙ্গ বাণিজ্য সমিতিগুলির “ভারতীয় প্রদর্শনী” নামে একটি নতুন ধারণা চালু করতে চলেছে যা বাংলাদেশ ও ভারতের মাঝে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যকে এগিয়ে নিয়ে যেতে আরো সহায়তা করবে।

প্রসঙ্গত, বাণিজ্য বহুমূখীকরণে তিনি বাংলাদেশের চামড়াজাত পণ্য, ওষুধ, জাহাজ নির্মাণ শিল্প, হিমায়িত সামুদ্রিক খাদ্য, সিরামিক, পাটপণ্য, তথ্য প্রযুক্তি, মৎস্য এবং হোম এ্যাপ্লায়েন্সের উল্লেখ করেন। সিডব্লিউবিটিএ সম্মেলন উদ্বোধনের পাশাপাশি বাংলাদেশের ব্যবসায়ি নেতা ভারতের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর সাথেও তাঁর অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন।

বিশেষ করে সম্মেলনে আগত ব্যবসায়ীদের বিটুবি মিটিং এ আবদুল মাতলুব আহমাদ এর দক্ষতা অভিঞ্জতা কাজে লাগিয়ে সঠিক মানুষটির সঙ্গে ঠিকভাবে যোগাযোগ করিয়ে একটি আলোচিত সম্মেলনে পরিনত করেন। একটি সফল সম্মেলনে রুপান্তিরত করেন । খোলামেলা আলোচনা করেন ব্যবসায়ীরা । ১৫ টি এমইইউ সাক্ষর করা হয় এই সম্মেলনে।

পদ্মার ইলিশ শুধু কলকাতা খায়না,গোটা পৃথিবীর মানুষ খায়: মাতলুব

আয়োজক সংস্থাটি জানাচ্ছে, এ সম্মেলনের অন্যতম একটি মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে যোগদানকারী দেশগুলোর ব্যবসায়ীদের মধ্যে পারস্পরিক পরিচয় ঘটানো। এতে করে তাদের মধ্যে কোনো ভুল বোঝাবুঝি থাকলে তা অবসান ঘটানো সম্ভব হবে এবং ব্যবসা-বাণিজ্যের নতুন পথ উন্মোচিত হবে। ব্যবসায়ীরা তাদের ধারণা সমৃদ্ধ করতে পারবেন। পারবেন তাদের সমস্যাগুলো নিয়ে আলোচনা ও সমাধান করতে।

সিডাব্লিউবিটিএ আরো মনে করে, ক্রমাগত পরিবর্তনশীল বিশ্বের সাথে তাল মেলাতে চাই কয়েকটি চলমান বিষয়ে জ্ঞানের আওতা বৃদ্ধি। যেমন, সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর এক্সিম পলিসি পরিবর্তনের দিকে নজর রাখা, প্রডাক্ট বাস্কেটে কী পরিবর্তন ঘটছে তার দিকে লক্ষ্য রাখা, নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন হচ্ছে কি না লক্ষ্য রাখা, ব্যবসার নতুন ক্ষেত্র খুঁজে পাওয়া গেল কি না দেখা।

আয়োজক সংস্থা সিডাব্লিউবিটিএ মনে করে, ব্যবসা-বাণিজ্য ক্ষেত্রে বিঘ্ন সৃষ্টিকারী উপাদান যত কম হবে, উৎপাদন ততোই বৃদ্ধি পাবে। এসবের মধ্যে রয়েছে পরিবহন সঙ্কট, উপযোগী অবকাঠামোর অভাব, চড়া শুল্কহার, প্রি-ইনস্পেকশন ও টেস্টিং ফ্যাসিলিটির স্বল্পতা ইত্যাদি।

এফবিসিসিআই সভাপতি কলকাতায়

এসব সমস্যা সমাধানে সিডাব্লিউবিটিএ বেশকিছু পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে। যেমন সিডাব্লিউবিটিএ প্রডাক্ট শো কেস ভবন প্রতিষ্ঠা, যেখানে সংশ্লিষ্ট সব দেশ তাদের পণ্য/তথ্য প্রদর্শন করতে পারবে।

উল্লেখ্য, আয়োজক সংস্থা সিডাব্লিউবিটিএ ভারতের প্রায় সব গুরুত্বপূর্ণ ট্রেড অ্যাসোসিয়েশনের একটি অ্যাপেক্স বডি। এ সংস্থা প্রায় আট লাখ ব্যবসায়ীর প্রতিনিধিত্ব করে, যাতে প্রায় সব রকম পণ্য ও সেবা অন্তর্ভুক্ত হয়। সিডাব্লিউবিটিএ প্রতি বছর এ রকম প্রদর্শনী ও সম্মেলনের আয়োজন করে, যেখানে প্রায় সবরকম পণ্য ও সেবার নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিরা যোগ দেন।

১৫-১৬ জুলাই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ইস্টার্ন ইন্ডিয়া ট্রেড সামিট-২০১৯

সি ডব্লিউবিটিআর-র) সভাপতি সুশীল পোদ্দার জানান, সিডাব্লিউবিটিএ-র প্রতিনিধিরা দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য বৃদ্ধির সন্ধানে নিয়মিতই প্রতিবেশী বিভিন্ন দেশ সফর করেন এবং কোনো না কোনো মাত্রায় সফল হন। সবাই জানেন, বাংলাদেশ, ভুটান, থাইল্যান্ড এখন দ্রুত উন্নতি করছে। ফলে তাদের পণ্য উৎপাদন এবং আমদানি-রফতানি সবই বাড়ছে। জিএসটি চালুর ফলে ভারতে পণ্যের ব্যয় কমছে, উৎসাহিত হচ্ছে ফেয়ার ট্রেড। দক্ষতা ও বাণিজ্য বেড়ে যাওয়ার কারণে সীমান্তের উভয় পাড়ে অবকাঠামোগুলোর উন্নয়ন ঘটানো হয়েছে এবং হচ্ছে। এসবের ফলে এই পরিবর্তমান সময়ে সকলেই ব্যবসা-বাণিজ্যের নতুন নতুন সুযোগের সন্ধান লাভ করছেন।

এই খবরটি ইংরেজীতে পড়তে চাইলে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুন—-

CWBTA Eastern India Trade Summit 2019

সর্বশেষ সংবাদ

Print Friendly, PDF & Email

মতামত দিন

 

মতামত দিন

bsti
exim bank
পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শক্ত অবস্থান নিয়েছেন। এজন্য তার অনেক আত্মীয়-স্বজনকে গণভবনে ঢোকা বন্ধ করে দিয়েছেন। আপনি কি এই পদক্ষেপ সমর্থন করছেন?

ফলাফল দেখুন

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
জীবনসঙ্গী সাংবাদিক হলে যেসব সুবিধা
।।মোহাম্মদ আবদুল্লাহ মজুমদার।। এ সুবিধার গুলোর...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • কুড়িগ্রাম আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন নিয়ে চলছে জল্পনা-কল্পনা
  • কুড়িগ্রামে পৃথক ঘটনায় ২ শিশুসহ তিনজনের মৃত্যু
  • ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের সাংসদকে সংবর্ধনা

দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শক্ত অবস্থান নিয়েছেন। এজন্য তার অনেক আত্মীয়-স্বজনকে গণভবনে ঢোকা বন্ধ করে দিয়েছেন। আপনি কি এই পদক্ষেপ সমর্থন করছেন?

  • মন্তব্য নাই (9%, ৫ Votes)
  • না (20%, ১১ Votes)
  • হ্যা (71%, ৪০ Votes)

Total Voters: ৫৬

১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, খাদ্যের মতো রাজনীতিতেও ভেজাল ঢুকে পড়েছে। আওয়ামী লীগ দীর্ঘদিন ক্ষমতায় তাই এখানেও কিছু ভেজাল প্রবেশ করেছে। আপনি কি এই মন্তব্যের সাথে একমত ?

  • মন্তব্য নাই (2%, ৩ Votes)
  • না (8%, ১২ Votes)
  • হ্যা (90%, ১২৮ Votes)

Total Voters: ১৪৩

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন বলেছেন, বিএনপি একটি বট গাছ, এ গাছ থেকে দু’একটি পাতা ঝড়ে পরলে বিএনপির কিছু যাবে আসবে না , এ মন্তব্যের সাথে কি আপনি একমত ?

  • মতামত নেই (7%, ৩ Votes)
  • না (29%, ১২ Votes)
  • হ্যা (64%, ২৭ Votes)

Total Voters: ৪২

অনেক এনজিও অসৎ উদ্দেশ্যে রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। আপনি কি এই মন্তব্যের সাথে একমত ?

  • মতামত নাই (0%, ০ Votes)
  • না (19%, ৬ Votes)
  • হ্যা (81%, ২৫ Votes)

Total Voters: ৩১

ডাক্তারদের ফি বেধে দেয়ার সরকারের পরিকল্পনার সাথে আপনি কি একমত?

  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (6%, ২ Votes)
  • হ্যা (94%, ৩০ Votes)

Total Voters: ৩২

দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়তে মন্ত্রীসভায় প্রধানমন্ত্রী যে চমক এনেছেন তাতে কি আপনি খুশি ?

  • মতামত নাই (15%, ৫ Votes)
  • না (24%, ৮ Votes)
  • হ্যা (61%, ২১ Votes)

Total Voters: ৩৪

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠ ,নিরপেক্ষ হয়েছে বলে আপনি মনে করেন ?

  • হা (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (100%, ০ Votes)

Total Voters:

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠ ,নিরপেক্ষ হয়েছে বলে আপনি মনে করেন ?

  • মন্তব্য নাই (9%, ২ Votes)
  • হ্যা (18%, ৪ Votes)
  • না (73%, ১৬ Votes)

Total Voters: ২২

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিরপেক্ষ হবে বলে আপনি মনে করেন ?

  • মতামত নাই (5%, ২ Votes)
  • হ্যা (34%, ১৫ Votes)
  • না (61%, ২৭ Votes)

Total Voters: ৪৪

একবার ভোট বর্জন করায় অনেক খেসারত দিতে হয়েছে মন্তব্য করে আর নির্বাচন বয়কটের আওয়াজ না তুলতে জোট নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন গণফোরাম সভাপতি কামাল হোসেন, আপনি কি একমত ?

  • মতামত নাই (3%, ১ Votes)
  • না (6%, ২ Votes)
  • হা (91%, ৩২ Votes)

Total Voters: ৩৫

সংলাপ সফল হবে বলে আপনি মনে করেন ?

  • হা (13%, ২ Votes)
  • মতামত নাই (13%, ২ Votes)
  • না (74%, ১১ Votes)

Total Voters: ১৫

আপনি কি মনে করেন যে কোন পরিস্থিতিতে বিএনপি নির্বাচন করবে ?

  • মতামত নাই (7%, ৭ Votes)
  • না (23%, ২৩ Votes)
  • হ্যা (70%, ৭১ Votes)

Total Voters: ১০১

অাপনি কি কোটা সংস্কারের পক্ষে ?

  • মতামত নেই (3%, ১ Votes)
  • না (8%, ৩ Votes)
  • হ্যা (89%, ৩৩ Votes)

Total Voters: ৩৭

খালেদা জিয়ার মামলা লড়তে বিদেশি আইনজীবীর কোন প্রয়োজন নেই' বিএনপি নেতা আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেনের সাথে - আপনিও কি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ১ Votes)
  • না (27%, ৩ Votes)
  • হ্যা (64%, ৭ Votes)

Total Voters: ১১

আগামী সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিদেশিদের কোনো উপদেশ বা পরামর্শের প্রয়োজন নেই বলে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্য যৌক্তিক বলে মনে করেন কি?

  • মতামত নাই (7%, ১ Votes)
  • হ্যা (20%, ৩ Votes)
  • না (73%, ১১ Votes)

Total Voters: ১৫

এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব) অলি আহমাদ বলেন, এরশাদকে খুশি করতে বেগম জিয়াকে নাজিমউদ্দিন রোডের জেলখানায় নেয়া হয়েছে। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?

  • মতামত নাই (8%, ৫ Votes)
  • না (27%, ১৬ Votes)
  • হ্যা (65%, ৩৮ Votes)

Total Voters: ৫৯

আপনি কি মনে করেন আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহন করবে ?

  • না (13%, ৫৪ Votes)
  • হ্যা (87%, ৩৬২ Votes)

Total Voters: ৪১৬

আপনি কি মনে করেন বিএনপির‘র সহায়ক সরকারের রুপরেখা আদায় করা আন্দোলন ছাড়া সম্ভব ?

  • হ্যা (32%, ৪৫ Votes)
  • না (68%, ৯৫ Votes)

Total Voters: ১৪০

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের বিষয়টি সম্পূর্ণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপরে নির্ভরশীল, এ বিষয়ে অাপনার মন্তব্য কি ?

  • মন্তব্য নাই (7%, ২ Votes)
  • হ্যা (26%, ৭ Votes)
  • না (67%, ১৮ Votes)

Total Voters: ২৭

আপনি কি মনে করেন নির্ধারিত সময়ের আগে আগাম নির্বাচন হবে?

  • মন্তব্য নাই (7%, ১০ Votes)
  • হ্যা (31%, ৪৬ Votes)
  • না (62%, ৯১ Votes)

Total Voters: ১৪৭

হেফাজতকে বড় রাজনৈতিক দল বানানোর চেষ্টা চলছে বলে মন্তব্য করেছেন নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার। আপনি কি তার সাথে একমত?

  • মতামত নাই (10%, ৩ Votes)
  • না (34%, ১০ Votes)
  • হ্যা (56%, ১৬ Votes)

Total Voters: ২৯

“আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিলে দেশে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা কমে যাবে ”সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সাথে কি অাপনি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ৩ Votes)
  • না (32%, ১১ Votes)
  • হ্যা (59%, ২০ Votes)

Total Voters: ৩৪

আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধুর নাম ব্যবহার করে যারা সংগঠনের নামে দোকান খুলে বসেছে, তাদের ধরে ধরে পুলিশে দিতে হবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের আপনার প্রতিক্রিয়া কি ?

  • মতামত নাই (7%, ৩ Votes)
  • না (10%, ৪ Votes)
  • হ্যা (83%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৪২

ড্রাইভাররা কি আইনের উর্ধে ?

  • মতামত নাই (2%, ১ Votes)
  • হ্যা (14%, ৭ Votes)
  • না (84%, ৪৩ Votes)

Total Voters: ৫১

সার্চ কমিটিতে রাজনৈতিক দলের কেউ নেই- ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্য সমর্থন করেন কি?

  • মতামত নাই (5%, ৩ Votes)
  • হ্যা (31%, ১৭ Votes)
  • না (64%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৫৫