নীতিমালা হচ্ছে ফাইবার অপটিক ক্যাবল রক্ষায় 'রাস্তা কাটার'
Thursday, 16th May , 2019, 11:10 am,BDST
Print Friendly, PDF & Email

নীতিমালা হচ্ছে ফাইবার অপটিক ক্যাবল রক্ষায় ‘রাস্তা কাটার’



লাস্টনিউজবিডি,১৬ মে: বিভিন্ন প্রয়োজনে ঢাকাসহ সারাদেশে রাস্তা কাটা হয়। কোনও নিয়ম বা নীতিমালা না মেনে রাস্তা কাটা এবং ভূগর্ভস্থ কাজের ফলে টেলিযোগাযোগ খাতের বিভিন্ন অবকাঠামোসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় অনুষঙ্গ কাটা পড়ে। ফলে প্রায়ই দেখা যায় সংশ্লিষ্ট এলাকায় মোবাইল ফোনের নেটওয়ার্ক সমস্যা।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ইন্টারনেট ব্যবহারে সমস্যা দেখা দেয়। ফাইবার অপটিক ক্যাবল দামি এবং গুরুত্বপূর্ণ হওয়া সত্বেও কেবল নীতিমালা না থাকার কারণে বার বার কাটা পড়ে। এসব কারণে ফাইবার অপটিক ক্যাবলকে জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ সম্পদের মর্যাদা দেওয়া হচ্ছে। যেখানে সেখানে রাস্তা কাটায় এটা যেন নষ্ট না হয় সেজন্য একটি নীতিমালা তৈরির কাজ শুরু হয়েছে।

জানা যায়, সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর নিজ নিজ প্রয়োজনে রাস্তা কাটা হলেও ফাইবার অপটিক ক্যাবলকে কোনও গুরুত্বই দেওয়া হয় না। দিনে দিনে এই হার বাড়তে থাকায় টেলিযোগাযোগ খাতের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিচ্ছে। এসব সমস্যা রীতিমতো হুমকির পর্যায়ে চলে যাচ্ছে বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন সংশ্লিষ্টরা। সংশ্লিষ্ট কোম্পানিগুলো আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়লেও ক্যাবল কাটার দায় কেউ নিচ্ছে না। ক্যাবল কাটা পড়ায় টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তির সেবার জন্য তা বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। এসব কারণে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি এ সংক্রান্ত একটি নীতিমালা তৈরি করছে। কমিশনের ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন্স বিভাগ প্রণয়নকৃত খসড়া নীতিমালার শিরোনাম ‘জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ হিসেবে অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক সুরক্ষার জন্য ভূগর্ভস্থকাজের অনুমোদন সংক্রান্ত নীতিমালা’। যদিও নীতিমালা এখনও চূড়ান্ত হয়নি। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় নীতিমালা প্রণয়নের কাজে সহযোগিতা করছে।

জানা গেছে, নীতিমালার সংজ্ঞায় তিনটি পক্ষ থাকছে। একটি হলো প্রত্যাশী সংস্থা- যারা প্রয়োজনে ভূগর্ভস্থ কাজের বা রাস্তা কাটার অনুমোদন চেয়েছে। অনুমোদনকারী সংস্থা হিসেবে থাকছে যারা এই কাজের জন্য অনুমোদন দেওয়ার এখতিয়ার রাখেন। যেমন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিফতর, সড়ক ও জনপথ বিভাগ, সিটি করপোরেশন, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ। আর অপটিক্যাল ফাইবার স্থাপনকারী সংস্থা হিসেবে থাকছে ক্যাবল প্রতিস্থাপনকারী বা রক্ষণাবেক্ষণকারী সংস্থা তথা বিটিআরসি থেকে লাইসেন্সধারী অপারেটরগুলো। খসড়া নতিমালায় বলা হয়েছে, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে একটি কমিটি গঠন করবে এবং তাদের অনুমোদন না নিয়ে কেউ রাস্তা কাটা বা খুঁড়তে পারবে না।

সব ধরনের উদ্যোগ নেওয়ার পরও ফাইবার অপটিক ক্যাবল কেটে গেলে সেবা প্রত্যাশী সংস্থা ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য থাকবে বলে খসড়া নীতিমালায় উল্লেখ রয়েছে। এসব দেখা এবং তদারকির জন্য কেন্দ্রীয় মনিটরিং সিস্টেম প্রতিষ্ঠার জন্যও নীতিমালায় বলা হয়েছে।

জানতে চাইলে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘নীতিমালা হওয়া খুবই প্রয়োজন। সব কিছুরই একটা নিয়ম থাকতে হয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘ফাইবার অপটিক ক্যাবল একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সাম্প্রতিককালে অতীতের তুলনায় অনেক বেশি হারে রাস্তা কাটা হয়। অতীতে কদাচিত হতো। উন্নয়নমূলক কাজ করতে গেলেই এ ধরনের ঘটনা ঘটছে। বিষয়টি আমাদের ভাবনায় ফেলেছে।’ এখন আমরা ফাইবার ছাড়া চলতে পারি না উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘বিষয়টি (যেনতেনভাবে রাস্তা কাটা) সংশ্লিষ্টদের নজরে এসেছে। এটা রাষ্ট্রীয় একটি বিষয়। ফাইবার অপটিক ক্যাবলকে রাষ্ট্রীয় সম্পদ ঘোষণা করে সাবধানতার সঙ্গে রাস্তা কাটার কথা আমরা বলেছি।’

মন্ত্রী জানান, ‘ফাইবার অপটিক ক্যাবলের পুরো ম্যাপ আছে। রাস্তা কাটার সময় ম্যাপ দেখলেই তো হয়। সুতরাং নীতিমালা হলে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষ তা মেনে চলবেন। সব পক্ষ সব কিছু মেনে চললে আর ক্যাবল কাটা পড়বে না।’

এ বিষয়ে দেশে ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আইএসপিএবির সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুল হক বলেন, ‘ক্যাবল কাটা পড়লে সেবা বাধাগ্রস্ত হয়। নীতিমালা থাকা উচিত। সেই সঙ্গে যে ক্যাবল বিছানো হয়েছে তার ম্যাপও থাকা প্রয়োজন। তাহলে রাস্তা কাটার সময় কোনও সমস্যা হবে না।’ তিনি সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোকে ফাইবার অপটিক ক্যাবল বিষয়ে একটি ডাটাবেজ তৈরির আহ্বান জানান।

খসড়া নীতিমালায় ফাইবার অপটিক ক্যাবল নেটওয়ার্ককে জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ হিসেবে ঘোষণা করে পরিপত্র জারি করা সুপারিশ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, গত বছর প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের সভাপতিত্বে ডিএনসিসির এক বৈঠকে ফাইবার অপটিক ক্যাবলকে জাতীয় সম্পদ ও জরুরি সেবা উপাদান হিসেবে ঘোষণা করে এ সংক্রান্ত নীতিমালা প্রণয়নের সিদ্ধান্ত হয়।

অন্যদিকে মোবাইল ফোন ও এনটিটিএন অপারেটরগুলোর হিসাব অনুসারে, রাজধানীতেই প্রতি মাসে গড়ে অর্ধশত বা এর চেয়ে বেশিবার ফাইবার অপটিক ক্যাবল কাটা পড়ে। সারাদেশে এর পরিমাণ শতাধিক বলে জানা গেছে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আসাদুজ্জামান বলেন, ‘আমাদের একটা সড়ক খনন সেল রয়েছে। বিভিন্ন সেবা সংস্থার আবেদনের প্রেক্ষিতে ওই সেলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ও কাজের ধরন অনুযায়ী সময় দেওয়া হয়। সেক্ষেত্রে রাস্তা কাটার কারণে যে ক্ষতি হয়েছে সেকারণে খননকারী সংস্থা সেই ক্ষতিপূরণ দেয়। এক্ষেত্রে যদি কোনও ফাইবার অপটিক ক্যাবলসহ সরকারের অন্য কোনও সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের কোনও লাইনের ক্ষতি হয় তাহলে সড়ক খনন নীতিমালা অনুযায়ী খননকারী সংস্থাকে ওই ক্ষতিপূরণ দিতে হয়।’

ডিএসসিসির নগর পরিকল্পনাবিদ সিরাজুল ইসলাম বলেছেন, ‘একজন নগর পরিকল্পনাবিদ হিসেবে আমি বলতে পারি হঠাৎ করে যত্রতত্র খোঁড়াখুঁড়ি করা উচিত না। নির্ধারিত পরিকল্পনা মাফিক খনন করা হলে জনগণের ভোগান্তি হবে না, সরকারের সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোও ক্ষতি হবে না।’
লাস্টনিউজবিডি/এসএস

সর্বশেষ সংবাদ

Print Friendly, PDF & Email
Print Friendly, PDF & Email

মতামত দিন

 

মতামত দিন

bsti
exim bank
পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন বলেছেন, বিএনপি একটি বট গাছ, এ গাছ থেকে দু’একটি পাতা ঝড়ে পরলে বিএনপির কিছু যাবে আসবে না , এ মন্তব্যের সাথে কি আপনি একমত ?

ফলাফল দেখুন

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
হ্যাঁ, আমরাও পারি আমরাও পারব
।।আজিজুল ইসলাম ভূঁইয়া।। একবার না পারিলে দেখ শতবার...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসের য...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ধর্ষণের শিকার কিশোরী
  • ডোমারে প্রাপ্ত আসামী বাবু গ্রেফতার
  • সরাসরি কৃষকদের থেকে ধান সংগ্রহে নেমেছেন ঠাকুরগাঁও সদর ইউএনও

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন বলেছেন, বিএনপি একটি বট গাছ, এ গাছ থেকে দু’একটি পাতা ঝড়ে পরলে বিএনপির কিছু যাবে আসবে না , এ মন্তব্যের সাথে কি আপনি একমত ?

  • মতামত নেই (8%, ৩ Votes)
  • না (30%, ১২ Votes)
  • হ্যা (62%, ২৫ Votes)

Total Voters: ৪০

অনেক এনজিও অসৎ উদ্দেশ্যে রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। আপনি কি এই মন্তব্যের সাথে একমত ?

  • মতামত নাই (0%, ০ Votes)
  • না (19%, ৬ Votes)
  • হ্যা (81%, ২৫ Votes)

Total Voters: ৩১

ডাক্তারদের ফি বেধে দেয়ার সরকারের পরিকল্পনার সাথে আপনি কি একমত?

  • না (0%, ০ Votes)
  • মতামত নাই (6%, ২ Votes)
  • হ্যা (94%, ৩০ Votes)

Total Voters: ৩২

দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়তে মন্ত্রীসভায় প্রধানমন্ত্রী যে চমক এনেছেন তাতে কি আপনি খুশি ?

  • মতামত নাই (15%, ৫ Votes)
  • না (24%, ৮ Votes)
  • হ্যা (61%, ২১ Votes)

Total Voters: ৩৪

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠ ,নিরপেক্ষ হয়েছে বলে আপনি মনে করেন ?

  • মতামত নাই (0%, ০ Votes)
  • না (0%, ০ Votes)
  • হা (100%, ০ Votes)

Total Voters:

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠ ,নিরপেক্ষ হয়েছে বলে আপনি মনে করেন ?

  • মন্তব্য নাই (9%, ২ Votes)
  • হ্যা (18%, ৪ Votes)
  • না (73%, ১৬ Votes)

Total Voters: ২২

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিরপেক্ষ হবে বলে আপনি মনে করেন ?

  • মতামত নাই (5%, ২ Votes)
  • হ্যা (34%, ১৫ Votes)
  • না (61%, ২৭ Votes)

Total Voters: ৪৪

একবার ভোট বর্জন করায় অনেক খেসারত দিতে হয়েছে মন্তব্য করে আর নির্বাচন বয়কটের আওয়াজ না তুলতে জোট নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন গণফোরাম সভাপতি কামাল হোসেন, আপনি কি একমত ?

  • মতামত নাই (3%, ১ Votes)
  • না (6%, ২ Votes)
  • হা (91%, ৩২ Votes)

Total Voters: ৩৫

সংলাপ সফল হবে বলে আপনি মনে করেন ?

  • মতামত নাই (13%, ২ Votes)
  • হা (13%, ২ Votes)
  • না (74%, ১১ Votes)

Total Voters: ১৫

আপনি কি মনে করেন যে কোন পরিস্থিতিতে বিএনপি নির্বাচন করবে ?

  • মতামত নাই (7%, ৭ Votes)
  • না (23%, ২৩ Votes)
  • হ্যা (70%, ৭১ Votes)

Total Voters: ১০১

অাপনি কি কোটা সংস্কারের পক্ষে ?

  • মতামত নেই (3%, ১ Votes)
  • না (8%, ৩ Votes)
  • হ্যা (89%, ৩৩ Votes)

Total Voters: ৩৭

খালেদা জিয়ার মামলা লড়তে বিদেশি আইনজীবীর কোন প্রয়োজন নেই' বিএনপি নেতা আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেনের সাথে - আপনিও কি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ১ Votes)
  • না (27%, ৩ Votes)
  • হ্যা (64%, ৭ Votes)

Total Voters: ১১

আগামী সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিদেশিদের কোনো উপদেশ বা পরামর্শের প্রয়োজন নেই বলে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্য যৌক্তিক বলে মনে করেন কি?

  • মতামত নাই (7%, ১ Votes)
  • হ্যা (20%, ৩ Votes)
  • না (73%, ১১ Votes)

Total Voters: ১৫

এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব) অলি আহমাদ বলেন, এরশাদকে খুশি করতে বেগম জিয়াকে নাজিমউদ্দিন রোডের জেলখানায় নেয়া হয়েছে। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?

  • মতামত নাই (8%, ৫ Votes)
  • না (27%, ১৬ Votes)
  • হ্যা (65%, ৩৮ Votes)

Total Voters: ৫৯

আপনি কি মনে করেন আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহন করবে ?

  • না (13%, ৫৪ Votes)
  • হ্যা (87%, ৩৬২ Votes)

Total Voters: ৪১৬

আপনি কি মনে করেন বিএনপির‘র সহায়ক সরকারের রুপরেখা আদায় করা আন্দোলন ছাড়া সম্ভব ?

  • হ্যা (32%, ৪৫ Votes)
  • না (68%, ৯৫ Votes)

Total Voters: ১৪০

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের বিষয়টি সম্পূর্ণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপরে নির্ভরশীল, এ বিষয়ে অাপনার মন্তব্য কি ?

  • মন্তব্য নাই (7%, ২ Votes)
  • হ্যা (26%, ৭ Votes)
  • না (67%, ১৮ Votes)

Total Voters: ২৭

আপনি কি মনে করেন নির্ধারিত সময়ের আগে আগাম নির্বাচন হবে?

  • মন্তব্য নাই (7%, ১০ Votes)
  • হ্যা (31%, ৪৬ Votes)
  • না (62%, ৯১ Votes)

Total Voters: ১৪৭

হেফাজতকে বড় রাজনৈতিক দল বানানোর চেষ্টা চলছে বলে মন্তব্য করেছেন নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার। আপনি কি তার সাথে একমত?

  • মতামত নাই (10%, ৩ Votes)
  • না (34%, ১০ Votes)
  • হ্যা (56%, ১৬ Votes)

Total Voters: ২৯

“আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিলে দেশে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা কমে যাবে ”সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সাথে কি অাপনি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ৩ Votes)
  • না (32%, ১১ Votes)
  • হ্যা (59%, ২০ Votes)

Total Voters: ৩৪

আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধুর নাম ব্যবহার করে যারা সংগঠনের নামে দোকান খুলে বসেছে, তাদের ধরে ধরে পুলিশে দিতে হবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের আপনার প্রতিক্রিয়া কি ?

  • মতামত নাই (7%, ৩ Votes)
  • না (10%, ৪ Votes)
  • হ্যা (83%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৪২

ড্রাইভাররা কি আইনের উর্ধে ?

  • মতামত নাই (2%, ১ Votes)
  • হ্যা (14%, ৭ Votes)
  • না (84%, ৪৩ Votes)

Total Voters: ৫১

সার্চ কমিটিতে রাজনৈতিক দলের কেউ নেই- ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্য সমর্থন করেন কি?

  • মতামত নাই (5%, ৩ Votes)
  • হ্যা (31%, ১৭ Votes)
  • না (64%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৫৫