Loading...
Thursday, 11th October , 2018, 03:55 pm,BDST
Print Friendly, PDF & Email

‘রাত্রির গভীর বৃন্ত থেকে ছিঁড়ে আনো ফুটন্ত সকাল’ (ভিডিও)



 

।। আজিজুল ইসলাম ভূঁইয়া ।।

Loading...

সত্য স্বয়ম্ভূ। কোনো কোনো সময় সত্যকে ছাই চাপা দিয়ে রাখা যায়। তবে তা ক্ষণিকের জন্য। সত্য তার আপন গতিতে এক সময় মিথ্যার ধূর্ম্যজাল ভেদ করে স্বমহীমায় আর্বিভূত হয়। তাই আবারও সত্য সমুচ্চারিত হলো বিচারের বাণীর মাধ্যমে। সমুন্নত হলো ন্যায় বিচারের পতাকা। চৌদ্দ বছর পর জাতি বিচার পেলো মানবতার বক্ষ বিদীর্ণ করা ২১ আগস্ট হত্যাযজ্ঞের। মহামান্য আদালত দীর্ঘ শুনানির পর গতকাল বুধবার চাঞ্চল্যকর এই মামলার রায় ঘোষণা করলেন। দীর্ঘ প্রতীক্ষিত রায়ে আজ মহামান্য বিচারক লুৎফরজ্জামান বাবর ও আবদুস সালাম পিন্টুসহ ১৯ জনের বিরুদ্ধে ফাঁসির আদেশ দেন। একইসাথে তারেক জিয়া ও হারিছ চৌধুরীসহ আরো ১৯ জনকে যাবৎজীবন কারাদন্ড প্রদান করেন।

 

মানবতার বিরুদ্ধে ২১ আগস্টের পৈশাচিক অপরাধ যারা সংঘটিত করেছে, যারা আসুরিক চক্রান্তের মাস্টারমাইন্ড তারা আজ পবিত্র বিচারালয়ের রায়ের মধ্য দিয়ে নিক্ষিপ্ত হলো ইতিহাসের আস্তাকুড়ে। বিমোচিত হলো বিচারহীনতার কলঙ্ক। পেছনে পড়ে রইলো বিএনপি-জামাত সরকারের রচিত প্রহসনের কাহিনী। ন্যায়ের প্রশ্নে অবিচল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সার্থক উত্তরাধিকারী দেশনেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করে খুলে দিয়েছেন ন্যায় বিচারের বন্ধ দুয়ার। ইতিহাসের মেঘমুক্ত দিগন্তে সত্য আজ সূর্যের মতো দেদীপ্যমান। এই দিনটি দেখবার জন্যে অনেকগুলো বছর অপেক্ষায় ছিলো জাতি, ন্যায় বিচারের আশায় অধীর প্রতীক্ষায় প্রহর গণনায় রত ছিলেন ২১ আগস্টের বর্বরতার শিকার স্বজনহারা এবং আহত রক্তাক্ত নারী পুরুষ।
স্বাধীনতা ও মানবতাবিরোধী জামাত ও তার প্রকাশ্য দোসর বিএনপির দুঃশাসনের জ্বলন্ত সাক্ষী হয়ে রয়েছে মানবতা বিধ্বংসী রক্তাক্ত একুশে আগস্ট।

জননন্দিত জননেত্রী বঙ্গবন্ধু তনয়া শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে সেদিন তৎকালীন সরকারের লেলিয়ে দেওয়া ঘাতকচক্র নিরপরাধ জনসমাবেশের ওপর আর্জেস গ্রেনেড হামলা চালিয়েছে পৈশাচিক আক্রোশে। ওরা মেতে উঠেছিলো নরমেধ যজ্ঞে। সেই দানবীয় হিং¯্রতার ভয়াবহতা ও ব্যপকতা জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাÐের চাইতে কোনো অংশে কম নয়। ব্রিটিশ কর্ণেল ডায়ারের নির্দেশে নির্বিচারে গুলি চালানো হয়েছিলো জালিওয়ালানাবাগে। সে ছিলো ঔপনিবেশিক শাসনের কাল। কিন্তু স্বাধীন সার্বভৌম গণতান্ত্রিক বাংলাদেশের খোদ সরকার ও তার জোটের নীলনকশায় বিরোধীদলীয় নেত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে এমন নারকীয় ম্যাসাকার সংঘটিত হতে পারে তা ছিলো অকল্পনীয়। সেদিন মোহম্মদ হানিফের মতো বিদগ্ধ ও নিবেদিতপ্রাণ আদর্শবাদী জননেতাসহ আওয়ামীলীগের ত্যাগী নেতাকর্মীরা মঞ্চে নেত্রীকে ঘিরে মানববর্ম রচনা করে আল্লাহর অশেষ রহমতে নৃশংস হামলা থেকে সভানেত্রীর জীবন রক্ষা করেন। কিন্তু সেই বর্বর হামলায় নিহত হন বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক সহকর্মী মহিলা আওয়ামীলীগের সভানেত্রী আইভি রহমানসহ ২৪ জন নেতা-কর্মী। আইভি রহমান মারাত্মক আহত হয়ে হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে শাহাদাৎ বরণ করেন।

 

 

আর্জেস গ্রেনেডের স্পিøণ্টারবিদ্ধ হয়ে আহত হন তিন শতাধিক নেতাকর্মী। তাদের অনেকে কর্মক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছেন। চৌদ্দটি বছর ধরে তারা বয়ে বেড়াচ্ছেন যন্ত্রণাকর দুর্বিষহ জীবনের বোঝা। মেয়র হানিফও আহত হয়েছিলেন। তিনি সেই জীবনযন্ত্রণা নিয়েই কয়েক বছর পর ইন্তেকাল করেন। এই সময়ের মধ্যে আরও অনেকেই একই কষ্ট নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন। যন্ত্রণাকর জীবনকালে তারা দেখলেন বিএনপির জামাত জোটের প্রহসন, বিচার দেখে যেতে পারলেন না। কিন্তু তাদের শোকসন্তপ্ত স্বজন-পরিজন এবং যারা কষ্টের জীবন বয়ে বেড়াচ্ছেন, তাদের যন্ত্রণাকাতর চোখের কোণে আজ চিকচিক করছে আনন্দাশ্রæ। প্রিয়নেত্রী শেখ হাসিনার সরকার ন্যায়বিচার নিশ্চিত করেছেন। স্বাধীনতা ও মানবতার প্রতিপক্ষ সেই খুনীচক্র আইনের হাত থেকে রেহাই পায়নি, মাথার ওপর আজ তাদের ফাঁসির রজ্জু। বিএনপি জামাত জোট উদুরপিন্ডি বুদুর ঘাড়ে চাপাবার অনেক চেষ্টা করেছে, যে আওয়ামীলীগ নেত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে এই নারকীয় কাÐ ঘটানো হয়েছে, যারা আক্রমণের শিকার তাদেরই দিকে অভিযোগের আঙুল তোলার মতো অসভ্যতার পরাকাষ্ঠাও প্রদর্শন করেছে খালেদা-নিজামী জোট। জজ মিয়া নাটক সাজানো হয়েছিলো, আওয়ামীলীগের মামলা পর্যন্ত নেয়া হয়নি। এক সদস্যের বশংবদ তদন্ত কমিটি করে এই নজীরবিহীন নৃশংসতার দায় চাপনোর চেষ্টা করা হয়েছে প্রতিবেশী দেশের গোয়েন্দা সংস্থার ওপর। কিন্তু মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ়তার কল্যাণে সে সব নাটক কোনো কাজে আসেনি।

 

বছরের পর বছর যারা বিচারের আশায় প্রহর গুনেছেন, যাদের চোখের কোণে চিকচিক করছে আনন্দাশ্রæ তারা আজ তো মুক্তকণ্ঠে বলতেই পারেন, প্রিয় নেত্রী আমাদের শেখ হাসিনা, অপনি দীর্ঘজীবী হোন। আপনিই পারেন, আপনিই পেরেছেন। জাতির জনক ও নিষ্পাপ শিশু শেখ রাসেলসহ ১৫ আগস্টের বর্বর হত্যাকাÐের বিচার হয়েছে। খুনীরা শাস্তি এড়াতে পারেনি। পঁচাত্তর পরবর্তী জারি করা ইনডেমনিটি, বিদেশে ক‚টনীতিকের চাকরি দিয়ে খুনীদের পুরস্কৃত করা, দেশে এদের রাজনীতি করার অনুমতি দিয়ে পুনর্বাসিত করাÑ এসবের কোনো কিছুই খুনীদের রক্ষা করতে পারেনি। ১৯৯৬ সালে একুশ বছর পর পঁচাত্তরের ঘাতকচক্রের তৈরি করা কণ্টকার্কীর্ণ পথ পাড়ি দিয়ে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ তথা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষশক্তির সরকার ক্ষমতায় আসার পর ১৫ আগস্ট হত্যাকাÐের বিচার শুরু হয়ে শেষও হয়ে গিয়ে ছিলো। প্রকাশ্যে ফায়রিং স্কোয়াডে মৃত্যুদÐ দেয়া হয়েছিলো ঘাতকদের। কিন্তু ২০০১ সালে জামাত-বিএনপি জোট ক্ষমতায় এসে আদালতে নগ্ন হস্তক্ষেপের মাধ্যমে বিচার প্রক্রিয়া থামিয়ে দিয়েছিলো। টানা ছয় বছর বিচারের বাণী নীরবে-নিভৃতে কেঁদেছে। কিন্তু দিনের শেষে, বিলম্বে হলেও জাতি ন্যায়বিচার পেয়েছে। মানবতার জয় হয়েছে। এখনও কয়েকজন ফেরারি পলাতক। সারাদেশের মানুষ অপেক্ষায় আছেন, যারা পলাতক-লাপাত্তা, তাদেরও ফিরিয়ে আনা হবে, পিতৃহত্যা, শিশু হত্যার শাস্তি তাদের পেতে হবেই হবে। এই অমোঘ সত্য তারা উপেক্ষা করতে পারবে না।

 

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গোটা জাতি আজ ঐক্যবদ্ধ। সেই চেতনাগত ঐক্যের শক্তিই জননেত্রী শেখ হাসিনাকে সাহস যুগিয়েছে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের দিনগুলোতে সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধ ও গণহত্যার বিচার নিশ্চিত করতে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর নাজি বাহিনীর খুনী-জালেমদের বিচারের জন্যে ১৯৪৬ সালে গঠিত হয় নুরেমবার্গ আদালত এবং সেই আদালতে ঐতিহাসিক ট্রায়ালের মধ্য দিয়ে যে আন্তর্জাতিক আইন প্রণিত হয়, তারই আলোকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাঋদ্ধ বাঙালি বিচার পেয়েছে। নিজামী-মুজাহিদসহ একাত্তরের ঘাতক দালালরা শাস্তি পেয়েছে। একুশ বছর একাত্তরের খুনীদের বিচারের পথ রুদ্ধ করে রাখা হয়েছিলো। শাসন ক্ষমতার অংশীদার বানানো হয়েছিলো স্বাধীনতা বিরোধীদের। দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় এসে বেগম জিয়া নিজামী-মুজাহিদের গাড়িতে পতাকা দিয়েছিলেন। দেশবিরোধীরা দেশের কর্তৃত্ব হস্তগত করেছিলো। জাতির কাঁধে চাপিয়ে দেয়া হয়েছিলো কলঙ্কের জগদ্দল পাথর। সেই পাথর অপসারণ করলেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। পঁচাত্তর পরবর্তী একুশ বছর, তারপরে আরও পাঁচ বছরÑ সব মিলিয়ে ২৬ বছর ধরে স্বাধীনতাবিরোধীচক্র মুক্তিযুদ্ধ্রে চেতনাপথে যে অজ¯্র কাঁটা বিছিয়েছে, জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনা সেইসব কাঁটা উৎপাটন করে চলেছেন। মুক্তিযুদ্বের চেতনা আজ শক্তিতে রূপন্তরিত হয়েছে পুনর্বার শেখ হাসিনার নেতৃত্বে।

এটা সেই শক্তি, যা জাতিকে একাত্তরে বিজয় এনে দিয়েছে, এই শক্তিমন্ত্র দিয়েছে বাঙালির স্বাধীনতা, তার লাল সবুজ পতাকা। এই পতাকা আজ সমুন্নত-সম্মানিত বিশ্ব দরবারে। শান্তি ও উন্নয়নের রোল মডেল আজ বাংলাদেশ। জননেত্রী শেখ হাসিনা আজ বিশ্ব নেতা। তবু পথ এখনও মসৃণ নয়। বাধা আছে, কাঁটা আছে, দেশবিরোধী চক্রান্ত আছে। তবু পাড়ি দিতে হবে বন্ধুর এই পথ, যেতে হবে আরও বহুদূর। কিশোর কবি সুকান্তের কবিতার ভাষায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনা, আপনাকে বলি, ‘রাত্রির গভীর বৃন্ত থেকে ছিঁড়ে আনো ফুটন্ত সকাল/উদ্ধত প্রাণের বেগে উন্মুখর আমার এদেশ/আমার বিধ্বস্ত প্রাণে দৃঢ়তার এসেছে নির্দেশ।’

 

লেখক : সম্পাদক, বাংলাদেশ নিউজ ও
বাংলাদেশের খবর, উপদেস্টা সম্পাদক অনলাইন দৈনিক lastnewsbd.com.
ই-মেইল : aibdhaka@yahoo.com.

* প্রকাশিত মতামত লেখকের একান্তই নিজস্ব। লাস্টনিউজবিডি‌’র সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে
মিল নেই। তাই এখানে প্রকাশিত লেখার জন্য লাস্টনিউজবিডি‌ কর্তৃপক্ষ লেখকের কলামের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে আইনগত বা অন্য কোনও ধরনের কোনও দায় নেবে না।

 

 

 

 

Print Friendly, PDF & Email
Loading...
Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed

diamond world
Rupali bank ltd
exim bank
Lastnewsbd.com
পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

সংলাপ সফল হবে বলে আপনি মনে করেন ?

ফলাফল দেখুন

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
মাইনাস টু ফর্মুলা,খালেদা-তারেকবিহীন বিএনপি!
।।মহিবুল ইজদানী খান ডাবলু ।। সামরিক বাহিনীর প্র...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
সফল হওয়ার গল্প, সাফল্যের পথ
।।আলীমুজ্জামান হারুন।। ১৯৮১ সালে যখন নিটল মটরসে...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • মলান্দহে ইয়াবাসহ যুবক আটক
  • বকশীগঞ্জে বাল্যবিয়ে বিরোধী শপথ
  • লালমনিরহাটে জমি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ৩

সংলাপ সফল হবে বলে আপনি মনে করেন ?

  • মতামত নাই (17%, ২ Votes)
  • হা (17%, ২ Votes)
  • না (66%, ৮ Votes)

Total Voters: ১২

আপনি কি মনে করেন যে কোন পরিস্থিতিতে বিএনপি নির্বাচন করবে ?

  • মতামত নাই (7%, ৭ Votes)
  • না (23%, ২৩ Votes)
  • হ্যা (70%, ৭১ Votes)

Total Voters: ১০১

অাপনি কি কোটা সংস্কারের পক্ষে ?

  • মতামত নেই (3%, ১ Votes)
  • না (8%, ৩ Votes)
  • হ্যা (89%, ৩৩ Votes)

Total Voters: ৩৭

খালেদা জিয়ার মামলা লড়তে বিদেশি আইনজীবীর কোন প্রয়োজন নেই' বিএনপি নেতা আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেনের সাথে - আপনিও কি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ১ Votes)
  • না (27%, ৩ Votes)
  • হ্যা (64%, ৭ Votes)

Total Voters: ১১

আগামী সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিদেশিদের কোনো উপদেশ বা পরামর্শের প্রয়োজন নেই বলে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্য যৌক্তিক বলে মনে করেন কি?

  • মতামত নাই (7%, ১ Votes)
  • হ্যা (20%, ৩ Votes)
  • না (73%, ১১ Votes)

Total Voters: ১৫

এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব) অলি আহমাদ বলেন, এরশাদকে খুশি করতে বেগম জিয়াকে নাজিমউদ্দিন রোডের জেলখানায় নেয়া হয়েছে। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?

  • মতামত নাই (8%, ৫ Votes)
  • না (27%, ১৬ Votes)
  • হ্যা (65%, ৩৮ Votes)

Total Voters: ৫৯

আপনি কি মনে করেন আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহন করবে ?

  • না (13%, ৫৪ Votes)
  • হ্যা (87%, ৩৬২ Votes)

Total Voters: ৪১৬

আপনি কি মনে করেন বিএনপির‘র সহায়ক সরকারের রুপরেখা আদায় করা আন্দোলন ছাড়া সম্ভব ?

  • হ্যা (32%, ৪৫ Votes)
  • না (68%, ৯৫ Votes)

Total Voters: ১৪০

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের বিষয়টি সম্পূর্ণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপরে নির্ভরশীল, এ বিষয়ে অাপনার মন্তব্য কি ?

  • মন্তব্য নাই (7%, ২ Votes)
  • হ্যা (26%, ৭ Votes)
  • না (67%, ১৮ Votes)

Total Voters: ২৭

আপনি কি মনে করেন নির্ধারিত সময়ের আগে আগাম নির্বাচন হবে?

  • মন্তব্য নাই (7%, ১০ Votes)
  • হ্যা (31%, ৪৬ Votes)
  • না (62%, ৯১ Votes)

Total Voters: ১৪৭

হেফাজতকে বড় রাজনৈতিক দল বানানোর চেষ্টা চলছে বলে মন্তব্য করেছেন নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার। আপনি কি তার সাথে একমত?

  • মতামত নাই (10%, ৩ Votes)
  • না (34%, ১০ Votes)
  • হ্যা (56%, ১৬ Votes)

Total Voters: ২৯

“আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিলে দেশে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা কমে যাবে ”সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সাথে কি অাপনি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ৩ Votes)
  • না (32%, ১১ Votes)
  • হ্যা (59%, ২০ Votes)

Total Voters: ৩৪

আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধুর নাম ব্যবহার করে যারা সংগঠনের নামে দোকান খুলে বসেছে, তাদের ধরে ধরে পুলিশে দিতে হবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের আপনার প্রতিক্রিয়া কি ?

  • মতামত নাই (7%, ৩ Votes)
  • না (10%, ৪ Votes)
  • হ্যা (83%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৪২

ড্রাইভাররা কি আইনের উর্ধে ?

  • মতামত নাই (2%, ১ Votes)
  • হ্যা (14%, ৭ Votes)
  • না (84%, ৪৩ Votes)

Total Voters: ৫১

সার্চ কমিটিতে রাজনৈতিক দলের কেউ নেই- ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্য সমর্থন করেন কি?

  • মতামত নাই (5%, ৩ Votes)
  • হ্যা (31%, ১৭ Votes)
  • না (64%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৫৫

ইসি গঠন নিয়ে রস্ট্রপতির সংলাপ রাজনীতিতে একটি ইতিবাচক মাত্রা আসবে বলে কি আপনি মনে করেন ?

  • মতামত নাই (8%, ৭ Votes)
  • না (34%, ৩২ Votes)
  • হ্যা (58%, ৫৪ Votes)

Total Voters: ৯৩

Do you support DD?

  • yes (0%, ০ Votes)
  • no (100%, ০ Votes)

Total Voters:

How Is My Site?

  • Excellent (0%, ০ Votes)
  • Bad (0%, ০ Votes)
  • Can Be Improved (0%, ০ Votes)
  • No Comments (0%, ০ Votes)
  • Good (100%, ০ Votes)

Total Voters: