Thursday, 6th September , 2018, 09:47 am,BDST
Print Friendly, PDF & Email

লেগুনা বন্ধে দুর্ভোগে যাত্রীরা



লাস্টনিউজবিডি,০৬ সেপ্টেম্বর,নিউজ ডেস্ক: রাজধানীতে লেগুনা চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় বিপাকে পড়েছে রাজধানীবাসী।

গতকাল বুধবার নগরীর প্রায় সব রাস্তায় শত শত যাত্রী রোদ মাথায় দাঁড়িয়ে বাস বা অন্য বাহন ধরার তীব্র প্রতিযোগিতায় ছিল।

এ অবস্থায় যাত্রীতে ঠাসা বাসগুলোতে তীব্র ঝুঁকি নিয়ে ওঠার কসরত করতে দেখা যায় অনেককে। মূল সড়কের বাইরের রাস্তাগুলোতে বাস চলতে না পারার কারণে লেগুনাই ছিল এই দূরত্বে পৌঁছানোর অন্যতম বাহন। এসব কারণে গতকাল সবচেয়ে বেশি সংকটে পড়ে নারী ও শিশুরা। বাসে চাপাচাপি এড়াতে তারা এত দিন লেগুনাকে ভরসা করেই চলছিল।

ভোগান্তির শিকার যাত্রীরা বলছে, বিকল্প ব্যবস্থা না করে সরকার তাদের ‘হিতে বিপরীত’ অবস্থায় ফেলেছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আগে তো বাস বাড়ানো, সড়কের ব্যবস্থাপনা উন্নত করতে হবে, তারপর এ ব্যবস্থা। গণপরিবহন হিসেবে বাস কম থাকায় বিকল্প হিসেবে লেগুনা যাত্রীদের কাছে সহজলভ্য হয়ে উঠেছিল। ঢাকার প্রধান সড়ক থেকে অলিগলিতেও কি শিক্ষার্থী, কি অভিভাবক, কি শ্রমিক সবার ভরসা হয়ে উঠেছিল লেগুনা।

মহাসড়কে লেগুনা চলাচলের কারণে প্রাণহানি বেড়ে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৭ আগস্ট সড়ক পরিবহন উপদেষ্টা পরিষদের সভায় লেগুনা চলাচলে নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। এরপর ঢাকা মহানগর পুলিশ গত মঙ্গলবার লেগুনা বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দেয়। এতে মঙ্গলবার রাত থেকে রাজধানীর প্রায় ২০০ রুটে লেগুনা চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এশিয়া ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী নিশাত বলেন, ‘ফার্মগেটে আড়াই ঘণ্টা দাঁড়ানোর পর কোনো বাস পাইনি। লেগুনাও চলছে না। হঠাৎ লেগুনা বন্ধ করে দেওয়া ঠিক হয়নি। সময় বেঁধে দিয়ে, নির্দিষ্ট এলাকা ভাগ করে দিয়ে আপাতত চলতে দেওয়া উচিত।’

রহমত উল্লাহ মতিঝিলে মাছ বিক্রি করেন। বাসাবো এলাকায় তাঁর বাসা। গতকাল দুপুরে দৈনিক বাংলার মোড়ে এসে পড়েন বিপদে। বাসাবোয় যাওয়ার জন্য সেখানে একটিও লেগুনা নেই।

তিনি বলেন, ‘এই রম তো কোনো দিন অয় না। লেগুনা দিয়াই বাসাবো থাইকা আসা-যাওয়া করি। আইজ সকালে রিকশা দিয়া আইলাম। অহন বাসায় ফিরতে আইয়া দেহি লেগুনা নাই। রিকশা দিয়া গেলে তো অনেক ভাড়া লাগব!’ ক্ষোভের সঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমগো তো গাড়ি নাই। রিকশা-সিএনজি দিয়া চলার ক্ষমতাও নাই। লেগুনা দিয়া কম ভাড়ায় যাতায়াত করতাম। সেইডা বন্ধ কইরা দিলে আমগো চইলবো কেমনে!’ ওই সময় রহমত উল্লাহর মতো আরো অন্তত ২০-৩০ জন লোককে লেগুনা খুঁজতে দেখা গেল দৈনিক বাংলার মোড়ে। হঠাৎ লেগুনা বন্ধে তাদের কণ্ঠেও প্রবল ক্ষোভ।

গতকাল বিকেলে কল্যাণপুরে দেখা গেছে শত শত যাত্রী লেগুনার জন্য অপেক্ষা করছে। কিন্তু লেগুনা নেই। দুপুর ১টার দিকে গুলিস্তানের কাপ্তানবাজার এলাকায় দেখা গেছে, সেখানে একটিও লেগুনা নেই। অন্য দিন সেখানে অন্তত অর্ধশত লেগুনা দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যেত। মতিঝিল, যাত্রাবাড়ী, মগবাজার, বাড্ডা এলাকায় দেখা গেছে অন্য দিনের তুলনায় বাসের সংখ্যাও কম। বাসচালক ও হেলপাররা জানায়, পুলিশের অভিযানের ভয়ে অনেকে পুরনো গাড়ি নামায়নি। বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়ে পুলিশকে গাড়ির কাগজপত্র পরীক্ষা করতে দেখা গেছে।

লেগুনা বন্ধের বিষয়ে জানতে চাইলে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত সচিব) মো. সফিকুল ইসলাম বলেন, ‘লেগুনা অবৈধ গাড়ি। মাইক্রোবাস কেটে এগুলো বানানো হয়। দেশের বিভিন্ন স্থানে এগুলোর কারখানা আছে। বহু আগেই এগুলো সড়ক দুর্ঘটনার কারণ হয়ে দেখা দিয়েছিল। এখন পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হয়েছে। মানুষের প্রাণ বাঁচাতেই মহাসড়কে এগুলো নিষিদ্ধ করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘কঠিন সিদ্ধান্তের কারণে জনগণকে একটু দুর্ভোগ মেনে নিতে হবে। এতে অবৈধতা প্রাণনাশের কারণ হবে না।’ সময় বেঁধে দিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া দরকার ছিল—এমন মতামতের বিষয়ে তিনি বলেন, আগে বহুবার সময় দেওয়া হয়েছিল। কোনো ফল হয়নি।

বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, ‘লেগুনাকে ঢাকার উপসড়কে চলতে দিতে হবে। কারণ বিভিন্ন অলিগলি পর্যন্ত লেগুনা ঢুকতে পারে। বাস বা মিনিবাসের মাধ্যমে সেভাবে যাত্রী পরিবহন করা সম্ভব হয় না। বাসের বিকল্প হিসেবে এ ধরনের বাহন ঢাকার মিরপুর থেকে গুলশান, মহাখালী, মোহাম্মদপুর থেকে মিরপুর, ফার্মগেট থেকে নিউ মার্কেটসহ বিভিন্ন রুটে যাত্রী পরিবহন করত। যেখানে বাসে যাত্রীদের ঠেলে নারীরা উঠতে পারত না, সেখানে লেগুনায় তারা উঠতে পারত।’

দুর্ঘটনা গবেষণা ইনস্টিটিউটের সাবেক পরিচালক, বুয়েটের অধ্যাপক ড. সামছুল হক বলেন, ‘আমাদের দেশে কৃতিত্ব নিতে বা চাপে পড়ে এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ে থাকে। অথচ পুলিশের চোখের সামনেই এত দিন এ ধরনের বাহন চলেছে। পুলিশের পরিবহন চাহিদাও মেটাচ্ছে লেগুনা।’

তবে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান মো. মশিয়ার রহমানের মতে, পুলিশ যদি লেগুনা বন্ধ করতে চায় করুক। গণপরিবহনের শৃঙ্খলা ফেরাতে তারা এ উদ্যোগ নিতেই পারে।

ঢাকা যানবাহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের সাবেক নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম সালেহউদ্দিন আহমদ বলেন, ঢাকায় বড় বাস নামাতে হবে। এগুলো বিভিন্ন কম্পানি ভিত্তিতে চলাচল করবে। কোনো ধরনের চুক্তিতে চলবে না। এ জন্য ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের ৪০০০ বাস নামানো ও কম্পানিভিত্তিক বাস পরিচালনার প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করতে হবে। বিকল্প ব্যবস্থা না রেখে অভিযান চালানো বা কোনো কিছু বন্ধ করলে বিপর্যয় তো হবেই। আসলে সমস্যার সমাধানে আন্তরিকতা লাগে। কৃতিত্ব নেওয়ার জন্য হঠকারী সিদ্ধান্ত মানুষকে বিপদে ফেলে।

বাংলাদেশ অটোরিকশা অটো টেম্পো পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি রেজাউল ইসলাম বলেন, ‘ঢাকায় চলাচলরত লেগুনা বা হিউম্যান হলার পূর্বঘোষণা ছাড়াই চলাচল বন্ধের ফরমান জারি করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার। তিনি মেট্রো আরটিসির চেয়ারম্যানও। হঠাৎ এ সিদ্ধান্তে পরিবহন খাতে বিপর্যয় নেমে এসেছে। এটা হঠকারী সিদ্ধান্ত। আমাদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে পুলিশ প্রশাসন এ সিদ্ধান্ত নিতে পারত।’

বাংলাদেশ অটোরিকশা অটো টেম্পো পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক বলেন, ‘আমরা মঙ্গলবার রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধানমণ্ডির বাসায় গিয়ে জানতে চেয়েছি কেন হঠাৎ পূর্বঘোষণা ছাড়াই লেগুনা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত হলো। আমরা দুই হাজার চালক ও মালিক সেখানে উপস্থিত হই। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পরামর্শ অনুসারে আমাদের সংগঠনের ছয় সদস্যের প্রতিনিধিদল ঢাকা মহানগর ট্রাফিক পুলিশের অতিরিক্ত ও যুগ্ম কমিশনারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছে। পুলিশ কর্মকর্তারা বলেছেন, ভিআইপি সড়ক বাদ দিয়ে ফিডার রোডে লেগুনা চলতে পারবে। তবে পুলিশি আতঙ্কে চালকরা রাস্তায় বের হচ্ছে না।’

জানা গেছে, প্রয়োজনীয় বাসের অভাবে পুলিশও অভিযান চালানোসহ বিভিন্ন কাজে লেগুনা ব্যবহার করে আসছে। দেখা গেছে, পুলিশ লাইসেন্সহীন চালকের হাতে নিজেকে সঁপে দিয়ে লেগুনায় চলাচল করেছে। এ অবস্থায় বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ঢাকার মতো মেগাসিটিতে যেখানে যাত্রী পরিবহনের গণপরিবহন সংকট চরমে, সেখানে হঠাৎ লেগুনা বন্ধের মতো ঘোষণা হঠকারীই।

ঢাকায় বিআরটিএতে নিবন্ধিত বাস ও মিনিবাস আছে প্রায় ৩৯ হাজার ৬৬০টি। এর মধ্যে স্বাভাবিক সময়ে চলত প্রায় আট হাজার। বাকিগুলো বিভিন্ন কারণে ঢাকার বাইরে চালানো শুরু হয়েছিল। অনেক বাস মহানগরীতে চলাচলের একেবারে অনুপযোগী। শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের পর পুলিশ ও বিআরটিএ অভিযান শুরু করে আট হাজার বাস ও মিনিবাসের প্রায় অর্ধেকের চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। কারণ এগুলোর বৈধ চালক নেই কিংবা গাড়ির বৈধ কাগজপত্রও নেই। অভিযানের ফলে এখন প্রায় ৪০ শতাংশ বাস ও মিনিবাস রাস্তায় চলাচল করছে না বলে বিভিন্ন পরিবহন মালিক সমিতি ও শ্রমিক ইউনিয়ন সূত্রে জানা গেছে।

রোভার স্কাউটদের সঙ্গে কথা বলার সময় দুপুর ১২টা ৫৫ মিনিটে বেস্ট ট্রান্সপোর্ট কোং লি. নামের ১৫ নম্বর একটি বাস (ঢাকা মেট্রো ব-১১-৯৬৬৫) এসে দাঁড়ায় সোনালী ব্যাংকের পাশে। সেখানেই যাত্রীরা ওঠানামা শুরু করে। এ দৃশ্য দেখে দুজন রোভার স্কাউট দৌড়ে যায় বাসের কাছে। চালককে জানায়, নির্দিষ্ট স্টপেজে গিয়ে বাস থামাতে হবে। দেখিয়ে দেয় মতিঝিলে পাঠ্যপুস্তক ভবনের উল্টো পাশের রাস্তায় সেখানকার বাস স্টপেজ।

লাস্টনিউজবিডি/তাওহীদ

Print Friendly, PDF & Email
Print Friendly, PDF & Email

Comments are closed

diamond world
Rupali bank ltd
exim bank
Lastnewsbd.com
পেপার কর্ণার
Lastnewsbd.com
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন >

আপনি কি মনে করেন যে কোন পরিস্থিতিতে বিএনপি নির্বাচন করবে ?

ফলাফল দেখুন

Loading ... Loading ...
আর্কাইভ
মতামত
সংবাদ সম্মেলনে কেন এত চাটুকারিতা
।।নঈম নিজাম।। সংবাদ সম্মেলনে একজন সংবাদকর্মীর ক...
বিস্তারিত
সাক্ষাৎকার
দিল্লীর খাদ্যজাত পন্য মেলায় ভারত-বাংলাদেশ চেম্বারকে অামন্ত্রন
লাস্টনিউজবিডি,৩রা সেপ্টেম্বর,নিউজ ডেস্ক: ট্রেড কাউ...
বিস্তারিত
জেলার খবর
Rangpur

    রংপুরের খবর

  • রংপুরে দুই আওয়ামী লীগ নেত্রীর হাতাহাতি (ভিডিও)
  • বাঁশমালি সম্প্রদায়ের জন্য বসত ঘর নির্মাণ প্রকল্পে এক রডের পিলারে অসন্তোষ
  • মাগুরায় কভার্ডভ্যান চাপায় শ্যালক ও দুলাভাই নিহত

আপনি কি মনে করেন যে কোন পরিস্থিতিতে বিএনপি নির্বাচন করবে ?

  • মতামত নাই (2%, ১ Votes)
  • না (27%, ১৩ Votes)
  • হ্যা (71%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৪৯

অাপনি কি কোটা সংস্কারের পক্ষে ?

  • মতামত নেই (3%, ১ Votes)
  • না (8%, ৩ Votes)
  • হ্যা (89%, ৩৩ Votes)

Total Voters: ৩৭

খালেদা জিয়ার মামলা লড়তে বিদেশি আইনজীবীর কোন প্রয়োজন নেই' বিএনপি নেতা আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেনের সাথে - আপনিও কি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ১ Votes)
  • না (27%, ৩ Votes)
  • হ্যা (64%, ৭ Votes)

Total Voters: ১১

আগামী সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিদেশিদের কোনো উপদেশ বা পরামর্শের প্রয়োজন নেই বলে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্য যৌক্তিক বলে মনে করেন কি?

  • মতামত নাই (7%, ১ Votes)
  • হ্যা (20%, ৩ Votes)
  • না (73%, ১১ Votes)

Total Voters: ১৫

এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব) অলি আহমাদ বলেন, এরশাদকে খুশি করতে বেগম জিয়াকে নাজিমউদ্দিন রোডের জেলখানায় নেয়া হয়েছে। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?

  • মতামত নাই (8%, ৫ Votes)
  • না (27%, ১৬ Votes)
  • হ্যা (65%, ৩৮ Votes)

Total Voters: ৫৯

আপনি কি মনে করেন আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহন করবে ?

  • না (13%, ৫৪ Votes)
  • হ্যা (87%, ৩৬২ Votes)

Total Voters: ৪১৬

আপনি কি মনে করেন বিএনপির‘র সহায়ক সরকারের রুপরেখা আদায় করা আন্দোলন ছাড়া সম্ভব ?

  • হ্যা (32%, ৪৫ Votes)
  • না (68%, ৯৫ Votes)

Total Voters: ১৪০

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের বিষয়টি সম্পূর্ণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপরে নির্ভরশীল, এ বিষয়ে অাপনার মন্তব্য কি ?

  • মন্তব্য নাই (7%, ২ Votes)
  • হ্যা (26%, ৭ Votes)
  • না (67%, ১৮ Votes)

Total Voters: ২৭

আপনি কি মনে করেন নির্ধারিত সময়ের আগে আগাম নির্বাচন হবে?

  • মন্তব্য নাই (7%, ১০ Votes)
  • হ্যা (31%, ৪৬ Votes)
  • না (62%, ৯১ Votes)

Total Voters: ১৪৭

হেফাজতকে বড় রাজনৈতিক দল বানানোর চেষ্টা চলছে বলে মন্তব্য করেছেন নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার। আপনি কি তার সাথে একমত?

  • মতামত নাই (10%, ৩ Votes)
  • না (34%, ১০ Votes)
  • হ্যা (56%, ১৬ Votes)

Total Voters: ২৯

“আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিলে দেশে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা কমে যাবে ”সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সাথে কি অাপনি একমত ?

  • মতামত নাই (9%, ৩ Votes)
  • না (32%, ১১ Votes)
  • হ্যা (59%, ২০ Votes)

Total Voters: ৩৪

আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধুর নাম ব্যবহার করে যারা সংগঠনের নামে দোকান খুলে বসেছে, তাদের ধরে ধরে পুলিশে দিতে হবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের আপনার প্রতিক্রিয়া কি ?

  • মতামত নাই (7%, ৩ Votes)
  • না (10%, ৪ Votes)
  • হ্যা (83%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৪২

ড্রাইভাররা কি আইনের উর্ধে ?

  • মতামত নাই (2%, ১ Votes)
  • হ্যা (14%, ৭ Votes)
  • না (84%, ৪৩ Votes)

Total Voters: ৫১

সার্চ কমিটিতে রাজনৈতিক দলের কেউ নেই- ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্য সমর্থন করেন কি?

  • মতামত নাই (5%, ৩ Votes)
  • হ্যা (31%, ১৭ Votes)
  • না (64%, ৩৫ Votes)

Total Voters: ৫৫

ইসি গঠন নিয়ে রস্ট্রপতির সংলাপ রাজনীতিতে একটি ইতিবাচক মাত্রা আসবে বলে কি আপনি মনে করেন ?

  • মতামত নাই (8%, ৭ Votes)
  • না (34%, ৩২ Votes)
  • হ্যা (58%, ৫৪ Votes)

Total Voters: ৯৩

Do you support DD?

  • yes (0%, ০ Votes)
  • no (100%, ০ Votes)

Total Voters:

How Is My Site?

  • Excellent (0%, ০ Votes)
  • Bad (0%, ০ Votes)
  • Can Be Improved (0%, ০ Votes)
  • No Comments (0%, ০ Votes)
  • Good (100%, ০ Votes)

Total Voters: